September 27, 2022 11:16 PM Tuesday

ফাটাফাটি ফ্রাইডে দিয়ে ই-কমার্সে ইতিহাস গড়ল দারাজ- বাংলাদেশের একদিনের সেলসের সব রেকর্ড ভঙ্গ 2 1438

ডিসেম্বরের ৪ তারিখ দেশের শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স দারাজ ও রবি একসাথে আয়োজন করে বছরের সবচেয়ে বড় সেলস ইভেন্ট “ফাটাফাটি ফ্রাইডে” যেখানে বাংলাদেশের ই-কমার্সের ইতিহাসে রেকর্ড ব্রেকিং শপিং করেন গ্রাহকরা।
অভাবনীয় সব ডিলের অপেক্ষায় গ্রাহকরা রাত ১২ টা বাজার আগের থেকেই https://www.daraz.com.bd/fatafati-friday/ পেইজে অপেক্ষা করতে থাকে বছরের সেরা ডিলটি খুঁজে নিতে। প্রায় ১ মিলিয়ন মানুষ ফাটাফাটি ফ্রাইডের দিন দারাজের ওয়েবসাইট ভিজিট করে। যেকোনো সাধারণ দিনের থেকে প্রায় ৮০% বেশি অর্ডার ফাটাফাটি ফ্রাইডেতে পেয়ে দারাজ তাদের সর্বসময়ের সব রেকর্ডের উর্ধে উঠে আসে।

FFF_Infographic_newsletter_BD
এই ইভেন্টে বড় অংকের ছাড় পাওয়া যায় মোবাইল ফোন, টিভি,ফ্যাশন, হোম অ্যাপলায়েন্স সহ প্রায় সব ক্যাটাগরির প্রডাক্টের উপর। সব মিলিয়ে প্রায় ৭০ মিলিয়ন টাকার সমপরিমাণ ছাড় দেয়া হয়েছে ফাটাফাটি ফ্রাইডেতে। ৫০% বেচাকেনা হয় শুধুমাত্র মোবাইল ফোনের উপর। যার মধ্যে স্যামসাং এস ৬ এজের মতো ফ্ল্যাগসিপ ফোন সব বিক্রিয় হয়ে যায় ফাটাফাটি ফ্রাইডে শুরু হওয়ার মাত্র ২০ মিনিটের মধ্যে। ফ্যাশন পণ্যে, যেগুলো প্রায় প্রতিদিনই দারাজে ভালো বিক্রি হয়; ফাটাফাটি ফ্রাইডের দিন দারাজের ফ্যাশন পন্যের বিক্রয়ের পরিমাণ দাড়ায় প্রায় তিন মাসের সমপরিমান। যার মধ্যে সবথেকে বেশি বিক্রয় হয় ফ্ল্যাশ সেলে অংশগ্রহণকারী ফ্যাশন ব্র্যান্ড ডোরসের পণ্য। ডোরসের পরেই ফ্যাশন ক্যাটাগরির মধ্যে সবথেকে বেশি বিক্রয় হয় ওয়াচেস ওয়ার্ল্ডের ঘড়ি যা ফাটাফাটি ফ্রাইডে শুরু হওয়ার ১২ ঘণ্টার মধ্যে সোল্ড আউট হয়ে যায়।
এছাড়াও দারাজ আরও জানায় তারা এ যাবৎ কালের সবথেকে বেশি ফ্রিজ, টিভি, ওয়াশিং মেশিন বিক্রিয় করতে সক্ষম হয় ফাটাফাটি ফ্রাইডেতে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে প্রায় ৭০% অর্ডার আসে, বাকি ৩০% আসে সারাদেশ মিলিয়ে।

এর আগে দারাজ ডট কম ডট বিডি ও ইজিপেওয়ে গ্রাহকদের জন্য ডাবল টাকা ভাউচারের ব্যাবস্থা করে। ডাবল টাকা ভাউচার অনলাইনে ক্রেডিট/ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে ক্রয় করে ক্রেতারা ভাউচারের মূল্যের থেকে দ্বিগুণ মূল্যের শপিং করতে পেরেছে এই ফাটাফাটি ফ্রাইডেতে। মজার ব্যাপার হচ্ছে, সবকয়টি ডাবল টাকা ভাউচার বিক্রি হয়ে যায় অফার করার ২ দিনের মধ্যে এবং সব কয়টি ডাবল টাকা ভাউচার ব্যবহৃত হয় ফাটাফাটি ফ্রাইডে শুরু হওয়ার ২ ঘণ্টার মধ্যে। উল্লেখযোগ্য ব্যাপার হল, ফাটাফাটি ফ্রাইডেতে প্রায় ২০% ক্রেতার সমাগম ঘটে দারাজের অ্যাপ থেকে।

ইজিপেওয়ের মতই অন্যান্যদের সাথেও ফাটাফাটি ফ্রাইডেতে দারাজের পার্টনারশিপ ছিল সফল। আসাধারন পন্যের বড় আকারের স্টক নিয়ে সনি, এল জি, মাইক্রোসফট, এসার অংশগ্রহণ করলেও খুব অল্প সময়ে স্টক আউট হয়ে যায় তাদের। এপেক্স, বাটা, ইয়োলো, লা রেভ ছিল হট পন্যের তালিকায় অন্যতম।
দারাজ বাংলাদেশ লিঃ – এর সি ই ও সুমিত সিং বলেন, “যেভাবে আমাদের বিক্রেতা ও ভেন্ডররা তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে আমদের উপর বিশ্বাস রেখেছে ও সহযোগিতা করেছে, তা থেকে মানুষের যে দারাজের উপর আস্থা আছে তা মেনে নিতে কোন কষ্ট হবার কথা নয়। দারাজ খুব অল্প সময়ে অনলাইনে ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়ের লাভের জন্য একটি প্লাটফর্ম হিসেবে পরিচিত হতে বদ্ধপরিকর।“

 

Previous ArticleNext Article

2 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

css.php