কেমন গেলো দেশের সর্বপ্রথম অনলাইন বৈশাখী মেলা? 0 344

বাঙ্গালীর সংস্কৃতির সবথেকে রঙিন ও জাঁকজমক উৎসব পহেলা বৈশাখকে যুগের সাথে তাল মিলিয়ে একটি ভিন্ন মাত্রা দান করতে দারাজ প্রথমবারের মতো অনলাইনে আয়োজন করে দারাজ বৈশাখী মেলা- ১৪২৩। প্রতিবছর পহেলা বৈশাখের দিনটিকে ঘিরে আগের থেকেই সবারই থাকে নানা রকম পরিকল্পনা এবং পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে থাকে নানা রকমের শপিং। তাই দেশের সবথেকে বড় অনলাইন শপিং প্ল্যাটফর্ম দারাজ এই বৈশাখকে আরও জাঁকজমক ও রঙ্গিন করতে সানসিল্কের সৌজন্যে ৮ থেকে ১৪ এপ্রিল আয়োজন করে দারাজ বৈশাখী মেলা-১৪২৩, যেখানে সব ক্যাটাগরির পণ্যের উপর সর্বোচ্চ ৭০% পর্যন্ত ছাড় দেয়া হয়।

৭ এপ্রিল রাত ১২ টা বাজার সাথে সাথে হাজার হাজার মানুষ ভিজিট করতে থাকে দারাজ ডট কম ডট বিডি- এর ওয়েবসাইটে,শুরু হয় শপিং উন্মাদনা। বৈশাখী ঝড়ের বেগে শেষ হয়ে যেতে থাকে মাইক্রোসফট লুমিয়া স্মার্টফোন, পাঞ্জাবী, শাড়ি, জুতো। প্রায় সর্বমোট ১ কোটি টাকা সমমূল্যের ডিস্কাউন্ট দেয়া হয় সাত দিনব্যাপী। শপিং প্রেমিকরা ল্যাপটপ ও কম্পিউটারের পাশাপাশি মোবাইলে দারাজ অ্যাপ ব্যাবহার করেও তাদের পণ্য অর্ডার করে।

কিন্তু দারাজের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য অর্জন এই বৈশাখী মেলায় হচ্ছে ক্রেতাদের সন্তুষ্টি। যা কিনা অর্জিত হয় ৯৫% অর্ডার পহেলা বৈশাখের পূর্বেই ডেলিভারি করার মাধ্যমে।

InfoGraphics-2

সবশেষে দারাজ ধন্যবাদ জানাতে চায়  সকল বিক্রেতারদের যারা কিনা ক্রেতাদের স্বার্থে এই অসাধারণ সব ডিল দারাজ বৈশাখী মেলাতে উপহার দেয়ার জন্য। সর্বোপরি ধন্যবাদ সকল ক্রেতাদের যারা প্রথম অনলাইন বৈশাখী মেলাতে শপিং করেছেন, খুব শীঘ্রই দারাজ হাজির হবে ক্রেতাদের জন্য সেরা ব্র্যান্ডের উপর, সেরা ডিল নিয়ে। আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন দারাজ নিউজলেটারে, ডাউনলোড করুন দারাজ অ্যাপ, চোখ রাখুন দারাজ ফেসবুক পেইজে, ফলো করুন টুইটারে

Previous ArticleNext Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

css.php