নিরাপদ অনলাইন শপিং | সুরক্ষায় ১০টি টিপস 0 3436

safe online shopping 10 tips

100% safe online shopping

সম্ভবত একুশ শতকের প্রযুক্তির কাছ থেকে সবচেয়ে বড় সেবা অনলাইন শপিং। আর বর্তমান সময়ে এই উন্নত অনলাইন শপিং এর সার্ভিস নেয় না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া বেশ দুষ্কর। অনলাইন শপিং আপনাকে দিবে ঘরে বসে রোদ, বৃষ্টি আর ট্রাফিক জ্যামের মধ্যে দোকান ঘুরে ঘুরে কেনাকাটা করার বিরক্তিকর অভিজ্ঞতা থেকে চির মুক্তি। ২৪ ঘন্টার যে কোন সময় আপনার মোবাইল কিংবা কম্পিউটার দিয়েই পণ্য পছন্দ করে অর্ডার করে ঘরেই পেতে পারেন সরাসরি হোম ডেলিভারি। তবে নিরাপদে অনলাইন শপিং করতে গেলে আপনাকে জানতে হবে বেশ কিছু কথা। এক নজরে দেখে নেয়া যাক কিভাবে আপনার অনলাইন শপিং কে করতে পারেন ১০০% নিরাপদ ও সুরক্ষিত।

  • ইউআরএল টি “https” কিনা এবং সেই সাথে এড্রেস বারের প্যাডলক আইকন দেখে নিন। আপনার ভিজিট করা সাইটটি নিরাপদ কিনা এ সম্পর্কিত তথ্য দিবে এসব আইকন।
  • সবসময় দারাজ, আলীবাবা কিংবা আলী এক্সপ্রেস এর মত বিশ্বমানের সাইট থেকে শপিং করা উচিত যাতে আপনি সুনিশ্চিত থাকতে পারেন যে কোন সমস্যায় আপনি পড়ছেন কিনা। সঠিক ভাবে ইউআরএল লিখুন। “যোগাযোগ করুন” কিংবা ‘Contact us” অংশ চেক করে দেখুন যে, কোম্পানীর নাম, ঠিকানা ও কল সেন্টার নম্বর ঠিক আছে কিনা।

  • কোন পণ্যের দাম যদি একেবারে হিসেবের থেকেও কম মনে হয়, সেক্ষেত্রে একটু সচেতনতার সাথে ভেবে শপিং করা উচিত। এক্ষেত্রে কল সেন্টারে ফোন করে কিংবা ই-মেইল করে নিশ্চিত হয়ে নিতে পারেন।
  • পপ-আপ অ্যাডে ক্লিক না করা ভালো। কারণ এটা অনেক সময় আপনাকে ক্ষতিকর কোন সাইটে রি-ডিরেক্ট করে দিতে পারে।
  • একেবারে ব্যক্তিগত তথ্য অনলাইনে শেয়ার না করা ভালো, যেমন সামাজিক সিকিউরিটি নাম্বার ইত্যাদি।
  • ওয়েবসাইটটির ফেরত নীতিমালা ও অনলাইন শপিং এর খরচ সম্পর্কিত তথ্যাদি পরীক্ষা করে নিন।
  • প্রতারণা এড়াতে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে সবসময় অনলাইনে পণ্য ক্রয় করা উচিত। বেশিরভাগ ক্রেডিট কার্ডেই স্টেটমেন্ট পাবার ৩০ দিনের মধ্যে কেনাকাটার সময় প্রতারণা হলে রিপোর্ট করার সুবিধা থাকে।
  • হাই এন্ড বিলাসবহুল পণ্যের ক্ষেত্রে, ভাল পণ্য হোম ডেলিভারির নিশ্চয়তা পেতে সর্বদা আসল/অফিশিয়াল রিটেইলার বা সেলার থেকে ক্রয় করুন, থার্ড পার্টি(Third Party) থেকে নয়। এমনটি হলে খারাপ পণ্য পাবার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যায়।
  • কোন অনলাইন রিটেইলারদের সাথে যখন একাউন্ট তৈরি করবেন তখন অবশ্যই শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন। প্রত্যেক একাউন্টের পাসওয়ার্ড ভিন্ন ভিন্ন হওয়া উচিত। এজন্য দেখে নিতে পারেন অনলাইনে কার্ড পেমেন্ট নিরাপদ কেন এবং কোন প্রকার অনলাইন ব্যাংকিং কিংবা লেনদেন কখনই পাবলিক ওয়াই-ফাই কানেকশনে করবেন না।

  • ই-মেইল থেকে আসা কোন লিংকে ক্লিক করার আগে সাবধান হোন। অনেক সময় এগুলো ভয়ানক হতে পারে। সন্দেহ হলে ক্ষতিকর লিংকে ক্লিক করবেন না। সাধারণত এসব লিঙ্ক থেকেই ব্যক্তিগত একাউন্টের তথ্য, পাসওয়ার্ড কিংবা ব্যাংকিং লেনদেন ও কার্ড নাম্বার হাতছাড়া হয়ে যায়। অথবা এমন কোন লিংকে রি-ডিরেক্ট হয়ে চলে যেতে পারে, যেখান থেকে পাসওয়ার্ড চিরতরে হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে। এমন কোন সমস্যার সম্মুখীন হলে সাইটটি নতুন উইন্ডো ওপেন করে “Contact Us” পোর্টালে গিয়ে ই-মেইল পাঠিয়ে রাখুন।

Previous ArticleNext Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

css.php