June 28, 2022 8:39 PM Tuesday
daraz eid big sale campaign

ঈদ ফ্যাশনে পাঞ্জাবি – সেরা দশ ব্র্যান্ড দারাজে

আমাদের সবার কাছেই ঈদ মানে একটি বাড়তি আনন্দময় উৎসব। ঈদ মানেই নতুন পাঞ্জাবিতে নিজেকে নতুন ভাবে সাজিয়ে তোলা। আর তাই ছোট-বড় সবাই প্রত্যেক ঈদে নতুন পোশাকে নিজেদেরকে সাজাতে চায়। বর্তমান সময়ের তরুণদের মধ্যে বিভিন্ন স্টাইল আর ডিজাইনের পাঞ্জাবি পরার প্রবণতা দেখা যায়। পাঞ্জাবীতে যেমন ফুটে ওঠে ব্যক্তিত্ব, তেমন লুকে আসে সৌন্দর্য্য, ফ্যাশনে আসে আভিজাত্য। সুন্দর রঙ ও বাহারী ডিজাইনের পাঞ্জাবী এখনকার আধুনিক তরুণ প্রজন্মের প্রথম পছন্দ।

যে কোন বয়সি তরুণ অথবা পুরুষকে যদি জিজ্ঞেস করা হয়, এবারের ঈদে কি কিনছেন, প্রায় সকলের কাছ থেকে একই উত্তর পাওয়া যাবে। আর তা হল ছেলেদের নতুন পাঞ্জাবী নিঃসন্দেহে। ঈদে নতুন পাঞ্জাবী না হলে একেবারেই চলে না ছেলেদের। ঈদে তপ্ত গরমে পাঞ্জাবীর পাশাপাশি অনেকে হয়তো ছেলেদের শার্ট, পোলো ও ছেলেদের টি শার্ট কিনে থাকেন। কিন্তু ঈদ উদযাপনে একটা পাঞ্জাবী না হলে কি আর চলে।

ঈদের অবিচ্ছেদ্য অংশ পাঞ্জাবী

ঈদের দিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পাঞ্জাবি ছাড়া দিনটাই যেন অসম্পূর্ণ। ঈদের উৎসবমুখর পরিবেশে দিনভর প্রিয়জনের সাথে ঘুরে বেড়াতে বেশিরভাগ পুরুষ পাঞ্জাবিকে রাখেন প্রথম পছন্দ হিসেবে। যেহেতু প্রখর রোদ ও গরমের সমস্যা উপেক্ষা করার মত নয়, তাই সুতি পাঞ্জাবিই হতে পারে সেরা ঈদ ফ্যাশনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। রঙের ব্যাপারে উজ্জ্বল ও গাড় রঙগুলোকেই প্রাধান্য দেয় তরুণ প্রজন্ম। আর ধীরে ধীরে ঈদের পাঞ্জাবিতে এম্ব্রয়ডারি কিংবা হস্ত শিল্পের চাহিদা দিন দিন কমছে, আর সেই জায়গায় পুরুষরা এখন হালতা ডিজাইনের পাঞ্জাবির দিকেই বেশি ঝুঁকছেন। এছাড়া স্ক্রিন ও ব্লক প্রিন্ট করা পাঞ্জাবি ও স্ট্রাইপ এর পাঞ্জাবী তো আছেই।

গরম এবং বৃষ্টির কথা মাথায় রেখে এবারের ঈদের পাঞ্জাবীর কাপড়ে ভিন্নতা এনেছে দেশের সেরা ও জনপ্রিয় বিভিন্ন ব্র্যান্ড। প্রতিবারের মতোই নতুন সব ডিজাইনের পাঞ্জাবী পাওয়া যাচ্ছে দারাজ অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট তথা অ্যাপে। বৃষ্টির দিনে ম্যাড়ম্যাড়ে আবহাওয়াকে দূর করতেই যেন রঙিন সব কাপড় ব্যবহার করা হচ্ছে পাঞ্জাবীতে।

বাংলাদেশের সেরা ১০ ব্র্যান্ড

দেশের এক নম্বর অনলাইন মার্কেটপ্লেস দারাজ বাংলাদেশ পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে জনপ্রিয় ও দেশসেরা ১০ টি ব্র্যান্ডের বিশেষ ডিজাইনের অসংখ্য পাঞ্জাবীর সুবিশাল কালেকশন নিয়ে হাজির হয়েছে ক্রেতাদের কাছে।

ঈদের পাঞ্জাবীর সেরা ১০ ব্র্যান্ডসমূহঃ

স্বপনস ওয়ার্ল্ড | এলিগেন্স | ডুড স্টাইল | স্টোন রোজ | নাযারা | গুডম্যান | ট্রেন্ডজ | সারা লাইফস্টাইল | অলিম্পিয়া | আলভিনা

দেশ সেরা এসব ব্র্যান্ডের সেরা পাঞ্জাবী থেকে আজই খুঁজে নিন আপনার জন্য উপযুক্ত ঈদের পাঞ্জাবিটি। বাঙ্গালীর চিরায়ত ও ঐতিহ্যবাহী পোশাক পাঞ্জাবী কিনতে ঘুরে আসতে পারেন দারাজের ঈদ পাঞ্জাবি কালেকশন থেকে। এছাড়া দারাজে পাবেন ছেলেদের কেস জুতা সালের মূল্যতালিকা অনুযায়ী কেনার দারুণ সুযোগ। দারাজে রয়েছে টিভি, ফ্রিজ সহ বিভিন্ন সেরা মানের হোম এপ্লায়েন্স।

রোদ-বৃষ্টির ঝক্কি-ঝামেলা ঝেড়ে ফেলে, রাজ্যের জ্যাম কাটিয়ে আর প্রথাগত শপিং এর কঠিন ধকল পেরিয়ে গরমের মধ্যে হাতের কাছেই যদি দারাজের মত সহজ আর নির্ভরতাময় অনলাইন শপিং থাকে, তবে আর দুশ্চিন্তা কি! এখন ঈদ বিগ সেল ক্যাম্পেইন থেকে অর্ডার করে নিতে পারেন আপনার পছন্দের পাঞ্জাবি একটু বেশি ছাড়ে।

এছাড়া দেখতে পারেনঃ

কাতান শাড়ি
সানগ্লাস
গাউন জামা ডিজাইন

daraz eid big sale campaign

7 Traditional Sarees Every Woman Must Have In Her Wardrobe

Saree is one of the most powerful symbol of tradition for South Asian countries. History has been stuck within Saree for centuries as woman’s national wear from subcontinental period to today’s Bangladesh. Even this traditional wear of women is the regular wear for most of the Bangladeshi women. As tradition is mixed with every contexture of women’s saree, different types of traditional Bangladeshi saree from every corner of the country are found with several designs.

Do Checkout These 7 Most Popular Traditional Bangladeshi Sarees

1) Jamdani Saree

Have you ever heard about Muslin textile? It’s that kind of light textile of Bengal which is used for making Dhakai Jamdani Sari. Basically, jamdani is one of the oldest traditional women’s wear of which convention had been started before british period. The huge production has been eventually coming from Narayanganj district of Bangladesh from expert saree makers for centuries. Actually, an exquisite mixture of pure cotton is the signature element of Jamdani Sari. It’s the UNESCO certified woman’s traditional wear as the cultural heritage of humanity. It’s geometric design not only means royal vibe but also expresses luxury.

2) Banarasi Saree

It’s well known that Benarasi Saree is the finest piece from Benaras. It’s one of the popular women’s traditional wear since mughal period. This is that kind of silk saree which requires woven silk and embroidery with golden and silver brocade. But golds work is compacted through most part of banarasi sari which can give you a metallic visual effect actually.

3) Rajshahi Silk Saree

If you ask for the best silk saree of Bangladesh, your top pick should be Rajshahi Silk. This silk production belongs to high quality fabric specially. Mainly, three categories of silk are found along with Rajshahi Silk Shari – Mulberry Silk, Eri Silk, Tussar Silk.

4) Tant Saree

One of the famous Bengali traditional Sari is Tant Shari. It’s popularity is found in Dhaka, Tangail, Narayanganj and some other parts of the country. Considering the humid climate and hot weather, tant saree is prepared with comfortable cotton while transparency and lightness of clothes are also ensured nicely. The best part of this tant shari is the lower cost as Bangladeshi women wear it as regular dress.

5) Tangail Shari

The most popular Tangail saree was come into fashion from Tangail district of Bangladesh. The weaving technique of Tangail Saree is as similar as jamdani sari. Hence, the extra facility is the smooth wrap cotton which can make the user more comfortable. As gorgeous vibe is the ultimate issue, Tangail Silk saree is familiar as the common wedding wear of women in our country.

6) Katan Saree

As you know Katan saree as the well known sharee for our local divas, it’s popularity is spreading throughout other countries also. When plain woven fabric is the top strength of it, pure woven silk thread makes it price worthy as well. But light warp fabric is the common issue for katan and Bengali women accepts it as the old aged cultural perspective also.

7) Tussar Silk Sari

Tussar Silk is also introduced as tassar silk in south asian countries. The speciality of this silk is severe softness. Generally, it’s made of cocoon. This well-furnished fabric is processed through skillful handicrafts while the significant fact is vibrant color. The natural texture of Tussar Silk Sari seduces Bengali females always with rich value.

To avail attractive deals and discounts on all traditional saree, visit the Eid Big sale campaign of Daraz Bangladesh.  

More you can see…

>>New Saree Collection at Best Price<<

daraz eid big sale campaign

Looking for Panjabi Hot Deals? Gear Up Festive Mood Now!

Panjabi, men’s remarkable traditional wear in Bangladesh has been relating the religious festivals and glorious bengali culture since long years. And it’s that precious piece which can power on the ultimate festive mood of Bengali people on every celebrated occasion. But affordable cost issue matters as for we’ve arranged top hot deals of mens new panjabi design 2022 collection from the most popular panjabi brands in Bangladesh.


Latest Panjabi Collection At The Lowest Budget in Daraz

1) Panjabi Under BDT 2,000 to BDT 5,000

For your trendy panjabi collection, Daraz can be the best choice to order panjabi in Bangladesh. At Daraz online panjabi shop, all types of punjabi, kurta and pajama can be enjoyable with top quality cotton fabrics. Besides, you can avail huge discounts on every vital festivals of the country like pohela boishakh and Eid while panjabi price from 2000-5000 BDT may varies.

2) Panjabi Under BDT 600 to BDT 2,000

Through the recent years, you can recognize Daraz as the biggest name of mens fashion wear. You can find the best designers cut panjabi collection based on every religious and cultural bengali festivals here. And your panjabi wardrobe can be managed through the best deals as well. For your kind concern, now you can enjoy different models panjabi under 600-2000 BDT for sure.

3) Panjabi Under BDT 1,000 to BDT 2,000

Looking for the elegant fashion wear brand of Bangladesh? Daraz is here to serve the finest designs panjabi stock. Your most favorite cotton panjabi collection is available here with high end quality fabric. And your most wanted punjabi deal can be negotiable here within 1000-2000 BDT panjabi price now.

4) Panjabi Under BDT 1,200 to BDT 1,800

Finding the best linen panjabi will be effortless in BD as O Code can provide you the biggest deals of luxurious punjabi. Here cotton fabrics can also be found in kabli black, white and other colors panjabi design as well as gaye holud or pohela boishakh and Eid panjabi design for men. But you can opt for the multi colors printed panjabi in 1200-1800 BDT surely.

5) Panjabi Under BDT 1,200 to BDT 3,000

You may like check panjabi or stripe panjabi or crave for plain design panjabi as of popularity. So, keep eyes on the latest punjabi collection of Daraz that can amuse you with their monadic printed and check panjabi and kurtas. The surprising panjabi deals can be found around 1200 to 3000 BDT panjabi price at Daraz BD.


Definitely, these new panjabi designs can help you with proper panjabi solution while making decision for cultural festivals like pohela boishakh and religious festival like Eid Big Sale will be more easier than before. Apart from this, hot deals including boishakh and eid panjabi collection BD can also be the special part of your latest panjabi price in bangladesh (2022) for eid fest and pahela baishakh celebration.

Read more

daraz eid big sale campaign

ফ্যাশনে পাঞ্জাবি? দেখে নিন সেরা ৫ টি পাঞ্জাবি ব্র্যান্ড!

পাঞ্জাবি বাঙালির একটি ঐতিহ্যবাহী পোশাক হিসেবেই সমগ্র বাংলাদেশে দারুন ভাবে সুপরিচিত। বাঙালির ঐতিহ্যের প্রতিক হিসেবে পরিচিত এই বিশেষ পোশাকটি অবশ্য এদেশের প্রেক্ষাপটে একটি ঐতিহাসিক পোশাক হিসেবেও বিবেচিত। যার কারনে বাঙালির প্রত্যেক সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় উৎসব সমূহে পাঞ্জাবী হয়ে ওঠে ছেলেদের প্রথম পছন্দ। তবে ছোট-বড় বিভিন্ন উৎসব ছাড়াও বিয়ে-শাদি অথবা জন্মদিনের মত অনুষ্ঠানে পাঞ্জাবি ও শেরওয়ানির চাহিদা আমাদের দেশে রীতিমত ঈর্ষণীয়। এসব কারনে প্রতিবছর ঈদ বা যেকোন পালা-পার্বনে অথবা যে কোন বড় ধরণের উৎসবে বা অনুষ্ঠানে পাঞ্জাবি শপিং কে ঘিরে ক্রেতাদের উৎসাহ-উদ্দিপনার মাত্রা যেমন বাড়তি পর্যায়ে থাকে, ঠিক তেমনি ভালো দামে ভালো পাঞ্জাবি নিয়েও জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া বেশ ভাল ভাবেই ফুটে ওঠে। তবে পাঞ্জাবী নিয়ে দুশ্চিন্তায় ইতি টানবার সময় অবশ্যই এখন, বর্তমান সময়ে অনলাইনে পাঞ্জাবির শপিং খুব সহজসাধ্য ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর সবচেয়ে বেশি সংখ্যক পাঞ্জাবি ডিজাইন ও কালেকশন নিয়ে দেশের জনপ্রিয় অনলাইন শপ দারাজ প্রস্তুত আছে আপনার হাতের নাগালেই। এক্ষেত্রে দারাজের সম্মৃদ্ধ ব্র্যান্ড তালিকা আপনার পাঞ্জাবী শপিং কে আর একটু সহজ করে দিতে পারে।

চলুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক দারাজের তালিকাভুক্ত সেরা পাঁচটি পাঞ্জাবি ব্র্যান্ডঃ

১। স্বপনস ওয়ার্ল্ড পাঞ্জাবি

স্বপনস ওয়ার্ল্ড দেশের সবচেয়ে সেরা পাঞ্জাবী ব্র্যান্ড গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি ব্র্যান্ড। পাঞ্জাবীর শপিং এর ক্ষেত্রে সব সময়ের জন্য ক্রেতাদের পছন্দের তালিকার শীর্ষে থাকে দেশের জনপ্রিয় এই ব্র্যান্ড। সবচেয়ে বড় সুবিধা হল, আপনার চাহিদা অনুযায়ী পছন্দের সব স্বপনস ওয়ার্ল্ড পাঞ্জাবি পাবেন মনের মত দামে। এজন্য অনলাইনে আপনার পাঞ্জাবীর শপিং -কে আরামদায়ক করতে স্বপনস ওয়ার্ল্ড এর সব ধরণের সুতির পাঞ্জাবী দারাজে রাখা হয়েছে সমুন্নত হারে। আর ফ্যাশন সচেতন ছেলেদের জন্য স্বপনস ওয়ার্ল্ড এর সব ধরণের স্টাইলিস পাঞ্জাবীই থাকছে দারাজের কালেকশনে।

২। এলিগেন্স পাঞ্জাবি

দেশের আর একটি জনপ্রিয় পাঞ্জাবীর ব্র্যান্ড হচ্ছে এলিগেন্স। এলিগেন্স এর সেরা ডিজাইনের সব পাঞ্জাবীই এখন পাচ্ছেন দারাজের কালেকশনে। মান ও দামে বরাবরের মত সেরা এই এলিগেন্স পাঞ্জাবি ব্র্যান্ডটি আপনাকে যুগোপযোগি ফ্যাশনের আধুনিক সব টেস্ট যোগাবে। তাই দারাজের কালেকশনে থাকা এলিগেন্স এর সব আধুনিক মানের পাঞ্জাবী দেখে নিতে পারেন এক নজরে।

৩। আলভিনা পাঞ্জাবি

পাঞ্জাবী ব্র্যান্ডের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ নিঃসন্দেহে অনেক দূর এগিয়েছে বর্তমানে। বর্তমানে দেশে আলভিনা এর মত বড় ব্র্যান্ড আছে, দারাজে যে ব্র্যান্ডের পাঞ্জাবী আছে বেশ বিস্তৃত পরিসরেই। আলভিনার সবচেয়ে বড় সাতন্ত্র হল রুচিশীল ডিজাইন ও সুন্দর কারুকাজ, আর সব ধরণের সুতির পাঞ্জাবি আলভিনা সরবরাহ করে থাকে। তাই দারাজের কালেকশনে থাকা আলভিনা পাঞ্জাবি আপনার ট্রেন্ডি চাহিদা পূরণে সহায়তা করবে অনেকটা সহজেই।

৪। ট্রেন্ডস পাঞ্জাবি

ট্রেন্ডস বাংলাদেশের একটি অন্যতম খ্যাতি সম্পন্ন পাঞ্জাবির ব্র্যান্ড। ভাল মানের পাঞ্জাবি সংগ্রহে তাদের খ্যাতি আছে অনেক আগ থেকেই। চমৎকার প্রিন্টের পাঞ্জাবিতে ফুটিয়ে তোলা আভিজাত্য এই সুপরিচিত ব্র্যান্ডকে নিশ্চিত ভাবে অন্যান্যদের থেকে আলাদা করেছে। সেজন্য দারাজের কালেকশনে থাকা ট্রেন্ডস পাঞ্জাবি এখন বাছাই করতে পারেন নিশ্চিন্তেই।

৫। নাযারা পাঞ্জাবি

দারাজের কালেকশনে থাকা নাযারার বিভিন্ন ডিজাইনের পাঞ্জাবি আপনার পাঞ্জাবি ফ্যাশনের ধারণা পাল্টে দিতে পারে নিঃসন্দেহে। সুতির পাঞ্জাবিতে চোখ ধাঁধানো চেক আপনার মন ভুলিয়ে দিতে পারে পারতপক্ষে। দারাজের বিশাল পাঞ্জাবী কালেকশনে থাকা নাযারা পাঞ্জাবি সমূহ তাই এক ঝলক দেখে নিতে পারেন ব্যাপক ছাড়ে।

দেশ সেরা এই ৫ টি পাঞ্জাবি ব্র্যান্ড অনলাইনে আপনার ঈদের পাঞ্জাবী শপিং এর জন্য হতে পারে সবচেয়ে বড় সমাধান। তাই দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই ব্র্যান্ড সমূহের পাঞ্জাবীতে নিশ্চিত ছাড় উপভোগ করতে পারেন শুধুমাত্র দারাজ ঈদ বিগ সেল ক্যাম্পেইনে ভিজিট করেই। এছাড়া দারাজে ছেলেদের কেস জুতামেয়েদের ঘড়ি থেকে শুরু করে ছাতা সবকিছুই পাবেন সময়ের সবচেয়ে সাশ্রয়ী রেটে।

Daraz electronics week sale

দারাজ ইলেকট্রনিক্স উইক ক্যাম্পেইন – যেসব ডিল ও ডিসকাউন্ট অফার উপভোগ করতে পারবেন!

দেশের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন সেল দারাজ ইলেকট্রনিক্স উইক ক্যাম্পেইন ১৫ জুন থেকে শুরু হয়ে চলবে একেবারে ২১ জুন পর্যন্ত। দারাজ ইতিমধ্যেই সেরা দামে বাংলাদেশের ক্রেতাদের কাছে সেরা ও মানসম্মত পণ্য সরবরাহ করে গ্রাহকদের বিশ্বাস, নির্ভরতা এবং আস্থা অর্জনের সাথে সাথে চমৎকার গ্রাহক সন্তুষ্টি অর্জন করেছে। মূলত সেই সফলতার রেশ ধরেই দারাজের আয়োজনে এবার থাকছে জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের ইলেকট্রনিক্স পণ্য সেরা সব ডিল ও ছাড়ের সমারোহে। আর অনলাইনে বাংলাদেশি ক্রেতারা যাতে চাহিদার সেরা পন্যটি সবচেয়ে সেরা দামে নিজের হাতে পায়, সেটা নিশ্চিত করতে দারাজের আকর্ষণীয় ডিসকাউন্ট অফার ও লাভজনক দারাজ ভাউচার তো থাকছেই!

সেরা বাজেট, সেরা ব্র্যান্ড, সেরা গ্যাজেট

আপনি যদি দারাজ ইলেকট্রনিক্স উইক ক্যাম্পেইনের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ খুঁজতে চান, তাহলে সেটা হবে সবচেয়ে সাশ্রয়ী বাজেট দামে সেরা ইলেকট্রনিক্স পণ্য ও গ্যাজেট নিঃসন্দেহে। আর দারাজ আপনাকে নিশ্চিত করবে পছন্দের ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসের সাশ্রয়ী দাম, অফিশিয়াল ব্র্যান্ড ওয়্যারেন্টি ও সহজ রিটার্ণ পলিসি। তাছাড়া ক্রেতারা যেকোন নির্দিষ্ট ব্র্যান্ডের ১০০% অরিজিনাল পণ্যই পছন্দ মাফিক কিনতে পারবেন।

সেরা এক্সেসরিজ, সাশ্রয়ী দাম, সেরা মূল্যছাড়

দারাজ ইলেকট্রনিক্স উইক ক্যাম্পেইনে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স এক্সেসরিজ বিশেষ করে মোবাইল কেইস ও কভার, পাওয়ার ব্যাংক, হেডফোন ও স্মার্ট ওয়াচ সহ সকল পণ্যের উপর অবিশ্বাস্য মূল্যছাড় উপভোগ করা বেশ সহজ। ক্রেতারা এখন নামীদামী বিভিন্ন গ্যাজেট কিনতে কল্পনার চেয়েও অধিক হারে ডিসকাউন্ট অফার উপভোগ করতে পারবেন।

অনলাইন পেমেন্ট মেথডে বাড়তি ডিসকাউন্ট

ইলেকট্রনিক্স উইকের আকর্ষনীয় বিভিন্ন ডিলের বাইরেও ক্যাম্পেইনের পেমেন্ট পার্টনার ব্যাংক এর যেকোন ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড এর মাধ্যমে গ্রাহকরা অতিরিক্ত ছাড় পাবেন। আর বিকাশ পেমেন্টে লোভনীয় ক্যাশব্যাক অফার তো থাকছেই।

থাকছে ইলেকট্রনিক্স উইক ভাউচার

ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস ও এক্সেসরিজকে আরও সাশ্রয়ী করতে দারাজে থাকছে ইলেকট্রনিক্স উইক স্পেশাল ভাউচার, যা আপনার কেনাকাটাকে করবে আগের থেকে আরও বেশী সাশ্রয়ী।

ডিসকাউন্টের পাশাপাশি থাকছে ফ্ল্যাশ সেল

দারাজ এর যেকোন মেগা ক্যাম্পেইন মানেই নতুন চমক! এরকমই একটা চমক হিসেবে ইলেকট্রনিক্স উইক ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ে থাকছে ফ্ল্যাশ সেল। বিভিন্ন নামী ব্র্যান্ডের জনপ্রিয় মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ, ক্যামেরা, এসি ও ফ্রিজ সহ সকল ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য ও এক্সেসরিজের উপর আকর্ষনীয় ফ্ল্যাশ সেল চলমান থাকবে।

ইলেকট্রনিক্স উইকের আকর্ষনীয় ডিলগুলো লুফে নিতে এখনই ভিজিট করতে পারেন দারাজ ইলেকট্রনিক্স উইক (Daraz Electronics Week) ক্যাম্পেইন পেজে। আর ক্যাম্পেইনের সকল ডিল ও ডিসকাউন্ট অফার সম্পর্কে প্রতিনিয়ত আপডেট পেতে লগইন করে রাখতে পারেন আপনার দারাজ অ্যাপ অ্যাকাউন্টে।

Everything you need to know about Daraz global collection

A Guide to Buy Products from Daraz Global Collection

What is Daraz Global Collection?

Daraz Global Collection is all about bringing you internationally sourced products to Bangladesh through a platform you love and trust. Enjoy exclusive pieces from brands you already know and love or discover something new by trying popular brands from China and UAE – all available seamlessly through Daraz!

The best part about buying Global Collection products from Daraz is that you don’t have to pay any additional or hidden duties or taxes. The prices that are shown to you on the website/app are the same price you have to pay (exclusive of standard shipping charges).

In case you are asked to pay extra by customs or logistics, you can always reach out to Daraz through live chat or email to get help.

What Kind of Products Are Available in Daraz Global Collection?

That’s a tough question to answer because the simple truth is- you can get just about anything from Global Collection. From the latest fashion trends to chic home decor, nifty gadgets for everyday life, and even electronics!

global summer fest 2022

 

Want a better idea of the kind of products we’re talking about? Check out the buying guides we’ve done below for Global Collection products!

How to Find Daraz Global Collection Products on Daraz

There are two ways to identify Global Collection products while you’re browsing the Daraz website or Daraz app.

This button is your one-stop solution to all International Collection products. You’ll find categories devoted to help making searching through Global Collection products easier.

  • Filter Any Search Results

choose favorite global products from daraz.com.bd

Another way to ensure that you’re seeing Global Collection products across the site is by adding a location filter whenever you search for something. This ensures you are only shown products that ship from/are sourced from overseas.

Get to know more about your products by chatting with sellers through live chat and reading user reviews before you make a purchase!

How Long Does Daraz Global Collection Shipping Take?

Overseas shipping on Daraz takes 18 – 33 working days (timeline may change depending on products). This means that weekends are excluded from the calculation.

However, if you want faster shipping, there is a hack! Daraz has certain products from the Global Collection available at Daraz warehouses in Bangladesh. You can filter your search results further by choosing ‘Service’ > ‘Fulfilled by Daraz’. The delivery time for these items is between 1-2 days.

Can You Return Products on Daraz from the Global Collection?

Yes, you can return products from the Global Collection on Daraz provided that the product you purchased is eligible. You can check whether your product seller offers a return policy or not by checking the product details.

buy authentic global products at cheap price on daraz.com.bd

As you can see in the example above, the product is not eligible for returns. However, if the product you’ve selected is eligible here’s a guide on how to return products on Daraz successfully.

Worried about fake products on Daraz? Don’t worry! We help you understand how to buy authentic products from Daraz in this guide. Visit Daraz Global Summer Fiesta for exciting deals from overseas.

Happy Shopping!

 

Another Post to read,

<<Collection Point Address of Daraz Bangladesh>>

bangla new year sale 2022

আবার শুরু হচ্ছে বছরের সবচাইতে বড় বৈশাখী মেলা অনলাইনে!

দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৯

দারাজ বৈশাখী মেলায় সবাইকে স্বাগতম

দারাজ বাংলাদেশের পক্ষ থেকে সবাইকে বাংলা নতুন বছরের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায়, বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন শপিং মল দারাজ প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ক্রেতাদের কাছে হাজির হয়েছে দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন বৈশাখী মেলা ১৪২৯ নিয়ে। ক্রেতারা বৈশাখী মেলায় উপভোগ করতে পারবেন বিভিন্ন পণ্যে আকর্ষণীয় ছাড়। চমক নিয়ে আসা দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন পহেলা বৈশাখ মেলায় দারাজ বাংলাদেশের সাথেই থাকুন।

বাংলা নিউ ইয়ার (নববর্ষ)

বাংলা নিউ ইয়ার বা নববর্ষ হল বাংলা নতুন বছরের প্রথম মাস বৈশাখের প্রথম দিন। বাংলা ভাষায় “বাংলা নববর্ষ” কে বলা হয় “পহেলা বৈশাখ”। সাধারণত পহেলা বৈশাখ দিনটা হয় ইংরেজি বছরের চতুর্থ মাস এপ্রিলের ১৪ তারিখ। শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের সমগ্র বাঙ্গালীরাই এ উৎসবটিকে ঐতিহ্যগতভাবে পালন করে আসছে।

pohela boishakh (পহেলা বৈশাখ) - Daraz BD (দারাজ)

বাংলা নববর্ষ বা পহেলা বৈশাখের ঐতিহ্য ও উৎসব

পহেলা বৈশাখ বাঙ্গালীদের একটি ঐতিহ্যবাহী চিরায়ত উৎসব। এটি বাংলা পঞ্জিকার প্রথম দিন। বাঙ্গালীরা পহেলা বৈশাখ অনুষ্ঠানটিকে সবচেয়ে বেশী মর্যাদা দেয় এবং মনেপ্রাণে ভালবাসে। শুভাকাংখীদের “শুভ নববর্ষ” বলে স্বাগত জানায় এবং পুরনো বছরের সকল হিসেব-নিকেশ, দুঃখ-কষ্ট ভুলে “হালখাতা” নামক এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নববর্ষকে বরণ করে নেয়।

পহেলা বৈশাখের জন্য চাই বৈশাখী পোশাক

পহেলা বৈশাখের বিশেষ দিনে রমনার বটমূলে বর্ষবরণ করতে বের হওয়ার পরিকল্পনা মানেই বৈশাখী পোষাক কেনার ধুম। প্ল্যানমাফিক ড্রেসের সাথে সবকিছু ম্যাচ করে শপিং করা কিন্তু অতটা সহজসাধ্য কাজ নয়। তার উপর বিষয়টি যথেষ্ট সময় সাপেক্ষও বটে। মনের মত পোষাক আর ঠিকঠাক মত ম্যাচ না হলে কি আর বর্ষবরণ জমে? বিভিন্ন রঙের শাড়ী, পাঞ্জাবী, ফতুয়া, লুঙ্গি, ফ্ল্যাট স্যান্ডেল, সানগ্লাস, টিপ, হালকা জুয়েলারি, বৈশাখী ব্রেসলেট ছাড়াও বিভিন্ন রকমের পোষাক ও সরঞ্জামাদি কেনার ধুম পড়ে। সময় বাঁচিয়ে, সাশ্রয়ী দামে, ঠিকঠাক মত ম্যাচিং করে শপিং করার মত কষ্টকর কাজকে বর্তমান সময়ে এতোটা সহজ করবে অনলাইন শপিং, যা কেউ ভাবেনি আগে। ঘরে বসেই সময় নিয়ন্ত্রণে রেখে, এই যান্ত্রিক নগরীতে জ্যাম থেকে নিজেকে রক্ষা করে সহজেই এখন অনলাইনে শপিং করা যায়।

বৈশাখের প্রধান আকর্ষণ নারীদের শাড়ি আর পুরুষদের পাঞ্জাবি

পহেলা বৈশাখ মানেই সবার চোখ অসাধারণ ডিজাইনের সব শাড়ি আর পাঞ্জাবির দিকে। পহেলা বৈশাখে বর্ষবরণে কি পড়ে যাবেন তা আগেই সবাই ভেবে রেখে নিজের শপিং আগেই শেষ করে রাখেন বৈশাখ আর ঐতিহ্যপ্রেমী বাঙ্গালীরা। পরিবারের সবার জন্য কেনাকাটা করার ধুম পড়ে সমগ্র বাংলায়। ছোট ছেলেদের পছন্দ ঐতিহ্যবাহী সব পাঞ্জাবী, ফতুয়া অথবা কোন কোন ক্ষেত্রে ফতুয়ার সাথে গামছা আর লুঙ্গি। মেয়েরা তো সুন্দর ডিজাইনের শাড়ী ছাড়া কিছু কিনবেই না!

দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৯ কত তারিখ থেকে শুরু হচ্ছে?

১লা এপ্রিল, ২০২২ তারিখ, রোজ শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া দারাজ বাংলাদেশের বাংলা নতুন বছরের বৈশাখী মেলায় এখন অনলাইনেই ঘরে বসেই আপনি পাবেন অসাধারণ সব বৈশাখী কালেকশন। সঙ্গে সময়ের সেরা মূল্যছাড় তো থাকছেই। দারাজ থেকে কিনতে পারেন ডিজাইনার বৈশাখী পাঞ্জাবি, বৈশাখী শাড়ি, স্যান্ডেল, চুড়ি, টিপ, নানা ধরণের আকর্ষনীয় গহনা সহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের রকমারি পণ্য। এপ্রিল এর ১ তারিখ থেকে শুরু হওয়া এই মেলা চলবে একেবারে পহেলা বৈশাখ ১৪২৯ পর্যন্ত অর্থাৎ ১৪ এপ্রিল, ২০২২ পর্যন্ত।

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মেলা

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মেলা হল দারাজ বৈশাখী মেলা। দারাজ বাংলাদেশ বাঙ্গালী ক্রেতাদের নববর্ষ উদযাপনের জন্য দিচ্ছে বিশাল মূল্যছাড়। আপনি মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, টেলিভিশন, পোশাক, জুতা, জিনিসপত্র এবং আরো অনেক পণ্যের জন্য অনলাইন শপিং-এর উপর অবিশ্বাস্য মূল্যছাড় পেতে যাচ্ছেন। কেবল ফ্যাশন নয়, স্যামসাং, এইচপি, মাইক্রোসফট, লেনোভো, বাটা, এপেক্স সহ বড় বড় ব্রান্ডের মেগা সেল ইভেন্টে ক্রেতারা কেনাকাটা করতে পারবেন খুব স্বাচ্ছন্দ্যেই এবং আস্থার সাথেই।

চোখ রাখুন দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৯ ক্যাম্পেইনে

বছরের সেরা ডিল গুলো পেতে চোখ রাখুন দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৯ সনে। নিরাপদ অনলাইন শপিং করতে দারাজের সাথে থাকুন। প্রাণবন্ত অনলাইন শপিং করুন আর ঝক্কি-ঝামেলা কে বিদায় দিন এখনই।

দারাজের যেকোন আপডেট পেতে ভিজিট করুন দারাজ অফিশিয়াল ব্লগে। চোখ রাখুন দারাজ অনলাইন শপিং ওয়েবসাইটে এবং সেরা ডিল লুফে নিতে ডাউনলোড করুন দারাজ অ্যাপ।

শুভ নববর্ষ

daraz pohela boishakh sale

পহেলা বৈশাখের ইতিহাস ও বর্তমান

বছর ঘুরে আবারও আসতে যাচ্ছে পহেলা বৈশাখ। আবারও সময় আসছে পুরাতনের গ্লানি মুছে নতুন কে স্বাগতম জানানোর। আপনাদের কি জানা আছে পহেলা বৈশাখের প্রথম কবে পালন করা হয়? কিভাবে হয় এর প্রচলন? চলুন জেনে নেওয়া যাক পহেলা বৈশাখের ইতিহাস ও ঐতিহ্য।

ইতিহাস!!!

পয়লা বৈশাখ বা পহেলা বৈশাখ (বাংলা পঞ্জিকার প্রথম মাস বৈশাখের ১ তারিখ) বাংলা সনের প্রথম দিন, তথা বাংলা নববর্ষ। দিনটি বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নববর্ষ হিসেবে বিশেষ উৎসবের সাথে পালিত হয়। ত্রিপুরায় বসবাসরত বাঙালিরাও এই উৎসবে অংশ নিয়ে থাকে। সে হিসেবে এটি বাঙালিদের একটি সর্বজনীন লোকউৎসব হিসাবে বিবেচিত। গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জি অনুসারে ১৪ই এপ্রিল অথবা ক্ষেত্র বিশেষে ১৫ই এপ্রিল (ভারত) পহেলা বৈশাখ পালিত হয়।

ভারতবর্ষে মুঘল সম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার পর সম্রাটরা হিজরী পঞ্জিকা অনুসারে কৃষি পণ্যের খাজনা আদায় করত। কিন্তু হিজরি সন চাঁদের উপর নির্ভরশীল হওয়ায় তা কৃষি ফলনের সাথে মিলত না। এতে অসময়ে কৃষকদেরকে খাজনা পরিশোধ করতে বাধ্য করতে হত। খাজনা আদায়ে সুষ্ঠুতা প্রণয়নের লক্ষ্যে মুঘল সম্রাট আকবর বাংলা সনের প্রবর্তন করেন। সম্রাটের আদেশ মতে তৎকালীন বাংলার বিখ্যাত জ্যোতির্বিজ্ঞানী ও চিন্তাবিদ ফতেহউল্লাহ সিরাজি সৌর সন এবং আরবি হিজরী সনের উপর ভিত্তি করে নতুন বাংলা সনের নিয়ম বিনির্মাণ করেন। ১৫৮৪ খ্রিস্টাব্দের ১০ই মার্চ বা ১১ই মার্চ থেকে বাংলা সন গণনা শুরু হয়। তবে এই গণনা পদ্ধতি কার্যকর করা হয় আকবরের সিংহাসন আরোহণের সময় (৫ই নভেম্বর, ১৫৫৬) থেকে। প্রথমে এই সনের নাম ছিল ফসলি সন, পরে বঙ্গাব্দ বা বাংলা বর্ষ নামে পরিচিত হয়। সেই ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় আধুনিক নববর্ষ উদযাপনের খবর প্রথম পাওয়া যায় ১৯১৭ সালে।

সেই পহেলা বৈশাখের সাথে কালের রুপান্তরে যোগ হয় রমনার বটমূলে ছায়ানটের বর্ষবরণ, মঙ্গল শোভাযাত্রা, হালখাতা, পান্তা ও ইলিশ খাওয়ার প্রথা, নৌকাবাইচ, বউমেলা, ঘোড়ামেলা ইত্যাদি।

বর্তমান!!!

বর্তমানে পহেলা বৈশাখ কে ঘিরে আগের থেকেই শুরু হয় বাঙালিয়ানার রঙ্গে রাঙ্গার জন্য নানা রকম জল্পনা কল্পনা। আগেভাগেই বাঙালি মন প্রস্তুত থাকে পাঞ্জাবি ও পায়জামা, সাদা শাড়ি লালা পাড় সহ নানা রকম আয়োজনে নতুন বছরকে স্বাগতম জানাতে।

তাই বাঙালির প্রাণের উৎসবের আমেজে প্রতি বছরের ন্যায় এবারো দারাজ শপ অনলাইনে আয়োজন করতে যাচ্ছে বৈশাখের সব থেকে বড় ও ঐতিহ্যবাহী পহেলা বৈশাখ মেলা। যেখানে থাকবে আপনার পছন্দের সব পণ্যের উপর সর্বোচ্চ মূল্যছাড়! বিস্তারিত জানতে দারাজ পহেলা বৈশাখ ক্যাম্পেইনে চোখ রাখতে পারেন।

boishakhi saree at daraz

মেকআপ টিপস – কেমন হওয়া উচিত বৈশাখী সাজ?

সহজে জেনে নিন কেমন হবে এবারের বৈশাখী সাজ

কোটি বাঙ্গালির প্রাণের উৎসব বাংলা নববর্ষ, যা পহেলা বৈশাখ নামেও পরিচিত। বছরের বিশেষ এই দিনটিতে বেশিরভাগ মেয়েরাই পছন্দ করে শাড়ি-চুড়ি পরে ট্রেডিশনাল একটি লুক রাখার, আর সাথে থাকে মনোরম মেকআপের ছোয়া! কিন্তু বেজায় গরমের মধ্যে সবার একটাই চিন্তা থাকে কি করে মেক-আপ করলে তা অনেকক্ষন থাকবে আর পাশাপাশি এনে দিবে স্নিগ্ধতার ছটা। আসুন জেনে নেই কি ভাবে আমরা অল্প কিছু পণ্য ব্যবহার করেই পেতে পারি একটি অসাধারণ শৈল্পিক বৈশাখী লুক।

সবার আগে ফেসিয়াল ক্লিনজিং টা আবশ্যক। কারন, প্রথমত বৈশাখের দিনটিতে থাকে প্রচণ্ড গরম, আর যাদের অয়েলি বা তেলতেলে স্কিন, তাদের মেক-আপ করতে বেশ বেগ পেতে হয়। তাই ভাল একটি ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ভালো ভাবে ধুয়ে নিলে মুখের তেলতেলে ভাব টাও চলে যাবে, আর আপনার মুখে মেক-আপও বসবে বেশ সুন্দর ভাবে। ত্বকে ব্যাল্যান্স রাখার জন্যে ব্যবহার করতে হবে ময়েশ্চারাইজার ক্রিম এবং সেটি অবশ্যই হওয়া উচিত একটি জেল বেইসড লাইট ওয়েট ধরনের।

এবার আসি প্রিপ অ্যান্ড প্রাইমে। ফাউন্ডেশন দীর্ঘসময় ধরে রাখার ক্ষেত্রে সবচেয়ে জরুরি হচ্ছে প্রাইমার ও কন্সিলার। প্রাইমার ব্যবহার করে আপনি মুখের ফাইন লাইন ও পোরস ঢাকতে পারবেন। আর কন্সিলার ব্যাবহার করে আপনার মুখের ও চোখের নিচের যেকোনো কালো দাগ ঢাকা যাবে সহজেই।

এরপর আসে ফাউন্ডেশন বা বেইজ মেক-আপ। ফাউন্ডেশন কেনার ক্ষেত্রে অবশ্যই নিজের স্কিন টোনের থেকে এক শেড হালকা কিনতে হবে এবং এইটি অ্যাপলাই করার পর উইজ করতে হবে কমপ্যাক্ট পাউডার বা ফেইস পাউডার যা আপনার বেইজ মেক-আপ কে দিবে একটি কমপ্লিট লুক।

এখন আসা যাক আই মেকআপ সামগ্রী ও যাবতীয় অনুসঙ্গ প্রসঙ্গে। চোখটি সুন্দর করে না সাঁজালে কিন্তু আসলে পুরো লুকটাই অসম্পূর্ণ থেকে যায়, তাই চোখ কে বিভিন্ন রঙ্গে রাঙ্গাতে বাব্যহার করতে পারেন কালারফুল কন্টাক্ট লেন্স। চোখের পাতায় শাড়ির রঙের সাথে মিলিয়ে ব্যবহার করতে পারেন আই শ্যাডো। আর ফিনিশিং এ আইলাইনার ও চোখ বড় দেখানোর জন্যে ভ্লিউমাইজিং মাস্কারা।

সবশেষে, ঠোঁট! বৈশাখের পুরো লুকটা যদি লাল লিপস্টিক দিয়ে শেষ করা যায় তাহলে মনে হয় মন্দ হয়না কিন্তু লিপস্টিক টা হওয়া উচিত ফুল ম্যাট যাতে তা ছড়িয়ে না যায়। সবশেষে গালে একটু গোলাপি আভার ব্লাশন দিতে ভুলবেন না প্লিজ! ব্যস হয়ে গেল খুব সহজেই মাত্র কয়েকটা প্রোডাক্ট দিয়ে একটি বর্ণিল বৈশাখী সাজ!

আরো পড়ুনঃ নববর্ষে বৈশাখী সাজ

history of bangla new year

পহেলা বৈশাখ ১৪২৯ – ইতিহাস ও বৈশাখী মেলার আদ্যপান্ত

পহেলা বৈশাখ – ১ লা বৈশাখ ১৪২৯, ১৪ ই এপ্রিল ২০২২

পহেলা বৈশাখ কি?

বাঙ্গালীর উৎসব পহেলা বৈশাখ। পহেলা বৈশাখ বা নববর্ষ সুপ্রাচীন বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের অংশ। বাংলা পঞ্জিকার প্রথম মাস বৈশাখের প্রথম দিনটিকে পালন করা হয় বাংলা নববর্ষ অথবা বাঙ্গালীর বৈশাখী মেলা হিসেবে। এদিন বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নানা আড়ম্বর-আয়োজনের মাধ্যমে বরণ করে নেওয়া হয় নতুন বাংলা বছরকে। আগামী দিনের সম্ভবনা আর সমৃদ্ধি কামনায় উৎসবে মেতে ওঠে গোটা জনপদ।

পহেলা বৈশাখের ইতিহাস

বাংলা নববর্ষ বা পহেলা বৈশাখের ইতিহাসের সাথে জড়িয়ে আছে বাংলার সবুজ কৃষি নির্ভর সভ্যতা ও মুঘল সম্রাট আকবরের নাম। বাংলা পঞ্জিকা আসার আগে এদেশে কর আদায় করা হতো হিজরি পঞ্জিকা বা আরবী মাসের সাথে মিলিয়ে। কিন্তু চাঁদের উপর নির্ভরশীল আরবী পঞ্জিকার সাথে ফসল উৎপাদন ও খাজনা আদায়ের সময়কাল পুরোপুরি সুবিধাজনক না হওয়ায় সম্রাট আকবর প্রাচীন বাংলা বর্ষপঞ্জীতে সংস্কার আনেন। প্রথমদিকে এর নাম ছিলো ফসলি সন। পরে এটি বঙ্গাব্দ নামে পরিচিত হয়ে ওঠে।

পহেলা বৈশাখের গান

এসো হে বৈশাখ, এসো এসো ¶¶¶¶¶¶¶¶¶

পয়লা বা পহেলা বৈশাখ বাঙালির প্রাণের উৎসব। সারাদেশে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রবি ঠাকুরের চিরসবুজ গান ‘এসো হে বৈশাখ’-এর তালে তালে মেতে ওঠে গোটা জনপদের মানুষ। পহেলা বৈশাখের তাৎপর্য শুধুমাত্র আনন্দ-উৎসবেই সীমাবদ্ধ নয়- বরং এতে লুকিয়ে আছে পুরাতনকে সাথে নিয়ে, জরা-দুর্দশাকে শক্তিতে পরিণত করে সামনে এগিয়ে যাবার প্রত্যয়।

পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠান, খাবার ও সংস্কৃতি

প্রতি বছরের মতো এবারও নতুন বাংলা বছর ১৪২৯ সনকে বরণ করে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। ইংরেজী ক্যালেন্ডার অনুযায়ী পহেলা বৈশাখ ২০২২ সালের ১৪ এপ্রিল পালিত হবে। প্রচলিত বাংলা বর্ষবরণের অন্যান্য উপকরণের মতো এবারও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের তত্ত্বাবধানে মঙ্গল শোভাযাত্রা, রমনা বটমূলে পান্তা-ইলিশের সাথে সাথে পহেলা বৈশাখের কবিতা, ছবি, চিঠি ও সঙ্গীতের মাধ্যমে উদযাপন করা হবে নতুন বাংলা বছরকে। সাথে থাকবে বৈশাখী মেলা, নৌকা বাইচ, পুতুলনাচসহ আরো সব ঐতিহ্যবাহী আনন্দ-উৎসব অনুষঙ্গ।

নতুন সব বর্ণিল পোষাকে সজ্জিত নারী-পুরুষ-শিশুদের আনন্দ কোলাহলে বাংলা নববর্ষ বেঁচে থাকুক আরো হাজার বছর- বাংলা ও বাঙালির শেকড়ের উৎসব হিসেবে, নতুনকে জয় করা ও সামনে এগিয়ে যাবার প্রত্যয়ে।

পহেলা বৈশাখ – অনলাইন কেনাকাটা

নতুন বছরকে বরণ করতে নিশ্চিতভাবেই আপনার লাগবে বেশ কিছু অত্যাবশ্যকীয় বৈশাখী পোশাক, খাদ্য সামগ্রী ও বাহারী বৈশাখী উপকরণ। পয়লা বৈশাখে কেউ চাইবেন বৈশাখের রঙ্গে নিজেকে রাঙ্গাতে নতুন বৈশাখী পাঞ্জাবি কিংবা পহেলা বৈশাখের শাড়ি পড়তে। কেউবা চাইবেন পান্তা ইলিশ দিয়েই শুরু হবে নতুন বছর। কিংবা আপনার প্রয়োজন হতে পারে ঢোল, বাশি, ভূভুজেলা কিংবা ঐতিহ্যবাহী যে কোন বৈশাখী সরঞ্জাম। দারাজ অনলাইন শপ ক্রেতাদের জন্য তাই প্রতিবছরের ন্যায় এবারো আয়োজন করতে যাচ্ছে পহেলা বৈশাখ সেল উৎসব ১৪২৯ সাল। চলতি বছরের এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া বৈশাখী ক্যাম্পেইনটি চলবে একেবারে পহেলা বৈশাখ(pohela boishakh) পর্যন্ত। শুভ নববর্ষ!

css.php