qurbani shares in a cow

How Many Qurbani Shares in a Cow?

Want to know about how many shares in cow qurbani?

According to holy Quran, every eligible Muslim should intent for one share of Qurbani. Small animals like a goat or a sheep is equal to one Qurbani share. But when it comes to large animals like a cow or camel need to consider for seven shares. These can be split between seven individuals as well.

Qurbani Cow Shares for Eid ul Adha 2021

All praises to Allah (swt), it is permissible to share in a sacrifice if it is a camel or a cow, but it is not permissible to share in a sheep. It is permissible for seven people to share one camel or cow. It is narrated that the Sahabah radhi Allahu ‘anhum shared sacrifices: seven people would share a camel or a cow in Hajj and ‘Umrah.

Jabir ibn ‘Abd-Allah radhi Allahu ‘anhu said, “On the day of Hudaybiyah we offered the sacrifice with the Messenger of Allah salAllahu ‘alayhi wa sallam, a camel on behalf of seven and a cow on behalf of seven.” – Narrated by Muslim (1318)

How much is a qurbani cow share in Bangladesh (2021)?

Here is how much is qurbani share in cow in Bangladesh for qurbani is approximately:

Country Goat/Sheep One Share in Cow
Bangladesh BDT 10,000 BDT 8,500

How Many Qurbani Per Family is Expected?

Every Muslim parents should provide a share in the name of their children. Qurbani rules for husband and wives state that a husband does not need to give a share on behalf of his wife if she has her own money but can do so if they choose to.

Eid ul Adha is a religious event in the Islamic world. Muslims all around are waiting to perform the pilgrimage of Hajj and then do a qurbani in Bangladesh (or wherever they are). Knowing the correct qurbani share in cow can help you decide early on if you want a qurbani share in cow or a goat qurbani share (or sheep and camel). You can allocate you finances accordingly, performing and dividing qurbani share for cow in Bangladesh according to Islamic rules.

For the best deals, keep eyes on the Qurbanir Eid Big Sale campaign and online Gorur Haat for the 100% organic cow. 

Read Another Article: 

how to store and preserve qurbani meat

How to Store and Preserve the Qurbani Meat?

After all the qurbani rush finished, the focus simply turns into qurbani meat storage and preservation process. Then the main target is to free some space in the freezer. But the main concern should be proper packing or packaging of the qurbani meat. Moreover, you need to ensure no liquid spillage and keeping the meat packet intact for a longer period of time. To celebrate this meaty eid, the overall hygiene needs to be maintained for the refrigerator and freezer as well.

How to Store Qurbani Meat

Necessary tips and tricks to store the qurbani meat without any hassle!

  1. In order to stop the fridge from smelling, always debone the meat before storing it.
  2. Before packing it into the fridge, make sure all the blood has been washed out of the meat pieces.
  3. Get rid of the fat and trimmings in the pieces to regulate your own cholesterol levels.
  4. Right after the meat has been processed during qurbani, do not immediately store the meat in the fridge. Let it stay out in normal room temperature for 3-4 hours before storing it.
  5. To keep the taste of the meat fresh and intact, wash the meat properly and then add salt, masala, vinegar and store in the fridge.
  6. Pack the meat properly before putting it in the fridge.
  7. Store the meat in clear plastic air-tight bags in comparison to boxes.

How to Preserve Meat After Qurbani?

How to preserve the qurbani meats more longer?

Freezing Methods:

  • The best way to store the meat is to thoroughly clean it and put it into small ziplock bags of half a kg, flattened them a bit and freeze them right away. The flattening makes it easier to thaw the frozen meat when we need to use it.
  • Another method is to place the cleaned meat pieces on a plate and keep them under a fan overnight after covering with a muslin cloth. This will dry out a little moisture from the meat and make it easier to freeze it.
  • Yet another way can be by marinating the meat pieces along with the herbs of your choice and oil and leaving them in the freezer to freeze after putting into a zip lock bag. This will also save you the hassle of having to add a ton of spices while cooking it later on and the flavor from the herbs will incorporate well into the meat.
  • The most important part before freezing any meat however is how to pack it. Never ever freeze the meat in readymade polythene bags from the market or a newspaper. The polythene bags will result in freezer bites and the ink from the newspaper will soak into the meat making it quite harmful for consumption.
  • While the ideal way to pack the meat is in freezer safe zip lock bags that can be purchased from any supermarket store, you can make a makeshift wrap from aluminium foil if you don’t have any ziplock bags available at hand.
  • You can also mince the boneless cuts, make them into ristas and kababs and freeze them. Minced mutton can easily be frozen for up to 3 months or more.

Non-freezing Methods:

For folks who don’t have access to a freezer, there is no need for an alarm as it is possible to store meat for long without freezing it. After all the ancient folks didn’t always have freezers.

For preserving meat without a freezer, the best way is to dehydrate it. You can rub the mutton with salt all over, heat it over water for 10 mins. After 24 hours heat the meat in water again for 15 mins. This way you can easily use the meat for 3-4 days without having the need to put it into a refrigerator.

If you want to preserve your meat for longer than just a few days, then after slicing the meat into thin cuts, rub them with salt and leave them hanging on a wire hook in sun. The salt and sun will dry out the moisture from the meat and prevent it from spoilage.

It is always best to consume the frozen meats as early as possible. To thaw the frozen meat, simply leave it out on the counter top in the bag it was frozen in till it de-freezes, discard all the liquid that will ooze out from the meat while thawing and cook it as you would normally. If the frozen meat de-freezes, never ever refreeze it. Instead try cooking it and freezing the cooked meat. Your body will definitely thank you for it.

For the best deals, keep eyes on the Qurbanir Eid Big Sale campaign and online Gorur Haat for the 100% organic cow. 

Read Another Article: 

when is the qurbani eid

When is Eid ul Adha 2021 in Bangladesh?

When is Eid ul Adha 2021 in Bangladesh this year? Find When will be Eid ul Adha 2021 in BD with Eid ul Adha 2021 date and calender.

Eid ul Adha in Bangladesh 2021 is coming soon in July, and it’s no wonder that everyone is already waiting for the Eid ul Adha holidays! Eid al-Adha 2021 will start from the evening of 20th July till 21st July. So, eventually Eid ul Adha date 2021 in Bangladesh is 21st July*.

First of all, let’s look into some common Eid ul Adha FAQs to make sure you’re well prepared for Qurbani Eid 2021 when it arrives.

Eid ul Adha Date 2021 in Bangladesh

What Islamic date is Eid ul Adha in Bangladesh 2021?

The Islamic date for Eid ul Adha 2021 is July 21st, Wednesday. The Eid ul Adha in Islamic calendar comes after Eid ul Fitr and falls on the 10th day of Dhul Hijjah.

Eid ul Adha Date 2021 Observances in Bangladesh

Date Weekday Observance
July 20 Tuesday Eid ul Adha Holiday
July 21 Wednesday Eid ul Adha *
July 22 Thursday Eid ul Adha Holiday

On which date of Zil Hajj is Qurbani Eid in Bangladesh 2021?

Eid al Adha 2021 in Bangladesh (like every year) falls on the 10th day of Zil Hajj. That’s when the Hajj season will start for 2021.

What date is big Eid 2021?

Year Eid al-Fitr Eid ul-Adha
2019 5 June 12 August
2020 24 May 31 July
2021 13 May 21 July
2022 3 May 10 July

Is Eid ul Adha 3 days?

Eid ul Adha is a 3-day festival in which Muslims from all around the world engage in a sacrifice of a prescribed animal like sheep, goat, cow or camel. Many Muslims also perform the annual Islamic pilgrimage to Makkah, called Hajj, which is one of the most highly rewarded Holy acts.

“That they may witness benefits for themselves and mention the name of Allah on known days over what He has provided for them of [sacrificial] animals. So eat of them and feed the miserable and poor.” (Al-Haj 22/28)

Best Eid-ul-Adha Wishes Greetings and Messages in English

Best Eid-ul-Adha wishes, greetings and messages to greet your dear ones.

  • “May Allah’s blessings be with you today, tomorrow and always.”
  • “Sending you warm wishes on this Eid ul Adha 2021 and wish that it brings you joys and happiness. Remember me in your prayers.”
  • “May this Eid bring Fun; Eid brings Happiness, Eid brings God’s endless blessings, Eid brings fresh love…Eid MUBARAK to you and your family.”
  • “Offer you best to Allah and know that you sacrifice will be rewarded with the most divine blessings of all. Wishing you a joyful Eid ul Adha 2021 Mubarak!”

This would be the time to celebrate and enjoy the Qurbani Eid feast with our family staying home.  May Allah (swt) allow us to understand the true meaning of this holy sacrifice and grant our Qurbani erasing all errors, Ameen.

To celebrate this qurbani eid with Daraz, visit Eid Big Sale campaign and keep eyes on the online Gorur Haat to order 100% organic cow and goat in Bangladesh.

Read Another Article: 

*Depends on the moon siting only!

for whom qurbani is mandatory

Who is Eligible for Qurbani on Eid?

Sacrifice is an important act of worship in Islam. Sacrifice is obligatory on the able-bodied person. If one does not perform this great act of worship despite his ability, he is condemned in the hadith. It has been narrated in the hadith, ‘He who has the ability to sacrifice, but does not offer the sacrifice, let him not come to our Eidgah.’ (Mustadrake Hakim, Hadith: 3519; Attargib Wat Tarhib: 2/155)

No doubt that Qurbani is an integral part of Eid-ul-Azha. But who among the people at different levels of society are actually considered capable of qurbani?

Who is Eligible for the Qurbani? Let’s discuss this:

Nisab is the measure of the ability to perform qurbani in the name of Allah (swt). Nisab means to have 7.5 tolas (3 ounces or 87.48 gram) of gold or its equivalent or 52.5 tolas (21 ounces or 612.36 gram) of silver or its equivalent. However, as like zakat, this amount of wealth is not a condition for 1 full year to be required for qurbani.

This nisab determines the qurbani is compulsory on whom and who is not eligible for qurbani. The following rules determine who can perform the qurbani.

1. On the 10th, 11th and 12th of the Zilhaj month if a muslim owns the additional nisab amount of wealth after fulfilling the all kinds of household expenses, then Qurbani will have to be done for sure.

2. Qurbani is a must do for a person who will be the owner of the specified amount of wealth between 10 Zilhaj Fajr and 12 Zilhaj evening.

3. To support a family a minimum amount of land or crops (food-grains) are needed. If the value of the land or crop from that amount or the value of any one of them is equal to the value of the nisab amount of property, then the qurbani is a must.

4. If a muslim owns cash money worth of BDT 55,000 or more, gold or silver ornaments, business as well as additional houses and furniture out of necessity equivalent to nisab, then qurbani will be mandatory.

5. If all members of the family own a nisab amount of wealth, then qurbani is obligatory on all of them.

6. No matter how much wealth a person owns, it requires only one portion of qurbani. There is no provision for multiple quotas of qurbani. However, there is more reward in multiple shares of qurbani.

7. If a person swears or intends for qurbani whether he is wealthy or not, it must be fulfilled.

8. If a poor person buys a sacrificial animal for qurbani, then the qurbani must be compulsory for that person.

9. Those who pay Zakat, Qurbani must be compulsory for them.

10. Qurbani must be performed by every independent, mature, owner of wealth, healthy men and women according to nisab.

If a person cannot make the wajib qurbani done on the day of 10 to 12th Zilhaj, then it is prescribed to give the value of a goat suitable for the qurbani if he has not purchased the sacrificial animal. And if the animal was purchased, but could not qurbani for any valid reason, then the animal will be donated alive. (Badayos Sanaye: 4/204; Fatawa Kazikhan: 3/345)

To satisfy Allah (swt) with our qurbani, the intention should be pure. May Allah (swt) grant our qurbani and reward us for the holy sacrifice.

For the best deals, keep eyes on the Qurbanir Eid Big Sale campaign and online Gorur Haat for the 100% organic cow. 

Read Another Article: 

dividing qurbani cow meat

How to Divide Qurbani Meat in Islam

Qurbani is an annual ritual for Muslims across the world and a remarkably holy time in the Islamic calendar. Qurbani means sacrifice. Muslims devote animals to Allah during the period of Eid ul Adha in honour of the memory regarding the Prophet Ibrahim’s willingness to sacrifice his son for the will of Allah. Moreover, this post is about how to split the meat of Qurbani.

History of Qurbani

One night Prophet Ibrahim (AS) experienced a dream in which he was ordered to sacrifice his beloved son Ismail (AS). After waking up, he understood that it was a message and a command from Allah. Without any hesitation, he prepared his son for the sacrifice. Ibrahim (AS) loved his son affectionately yet this was no barrier to sacrifice his son for the will of Allah.

At the last moment, Allah replaced Ibrahim’s son with a ram and Ismail (AS) was unharmed. Allah tested Ibrahim’s faith to see his dedication to the creator. Ibrahim (AS) successfully passed the test and his devotion was rewarded by Allah. From that day onward, every Eid al-Adha once a year, Muslims slaughter an animal to celebrate Ibrahim’s (AS) sacrifice.

>> Nisab For Qurbani 2021 Bangladesh <<

How to Split Qurbani Meat?

Generally, we all know about the rule of how to divide Qurbani meat in Islam. Meat from Qurbani animals should be equally distributed in three parts-

  1. One part for the person who sacrificed the animal
  2. One part to be shared out among their family, friends and neighbors who are in need
  3. One part to be given to those who are poor and helpless

In Surah Al-Haz, it is mentioned that:

“So make them stand (at the time of sacrifice) and pronounce the name of Allah over them, and when they fall down on their sides (after they are slaughtered), eat from them and also feed them who do not ask and those who ask.”
Al-Quran (22:36)

Qurbani is a chance for sacrifice and it can teach us so many things about our world, our faith, and our relationship with Allah- an ultimate expression of the meaning of the word ‘Islam’.

Daraz is celebrating this Eid ul Adha with the online Gorur Haat and Eid Big Sale 2021 campaign- you can definitely grab the best deal in this Eid by visiting them.

You can also check,
Where to find Find 100% Organic Cow for Qurbani
Online Shopping Guide for Eid-ul-Azha
Check Your Eligibility for Qurbani on Eid

What is Nisab For Qurbani 2021 Bangladesh?

In the holy Quran, strict instruction for qurbani has been given from Allah (swt) to the muslims who are the owners of nisab amount of wealth.

Cash in hand, share certificates, prize bonds and savings certificates, gold-silver, precious metals, commercial assets and industrial trade, agricultural crops produced, livestock and other cattle, minerals, provident fund; qurbani should be performed on these but according to the Nisab.

What is Nisab for Qurbani?

Nisab is an Islamic word. To be liable for qurbani, your wealth amount must be more than a minimal figure. This wealth amount is termed the nisab.

What is the Nisab Amount Wealth for Qurbani and How is Nisab Value Calculated?

After fulfilling the daily needs and excluding the daily necessities, if there is fifty-two and a half tolas of silver (21 ounces or 612.36 gram) or seven and a half tolas of gold (3 ounces or 87.48 gram), or if one owns a business of its equivalent, it will be considered for the nisab of qurbani.

What is the Minimum Amount of Nisab on Which Qurbani is Due?

If a muslim owns the nisab amount of wealth on the 10th, 11th and 12th of the Zilhaj month after meeting all sorts of necessities and all kinds of house hold expenses, then he or she must perform qurbani in the name of the most merciful Allah (swt). 

Qurbani is a must if the cash money, business, lands and crops or food grains, assets and other profits or halal incomes are valued as the nisab amount for qurbani on the 10th, 11th and 12th of the Zilhaj month.

If the minimum nisab for qurbani is converted into cash, the money amount should be about BDT 55,000 and more.

For the best deals, keep eyes on the Qurbanir Eid Big Sale campaign and online Gorur Haat for the 100% organic cow. 

Read Another Article: 

daraz eid big sale campaign

৫ টি বিষয় যেটা প্রত্যেক ঈদেই ঘটে থাকে!

সবাইকে পবিত্র ঈদের শুভেচ্ছা

বছরের সবচেয়ে উৎসবমুখর সময় নিয়ে আবারো হাজির হতে চলেছে ঈদ! বছরের সবচেয়ে প্রতীক্ষিত এই দিনটিকে ঘিরেই মূলত আবর্তিত হয় আপনার সারা বছরের নানান পরিকল্পনা অনেকটা সুপরিকল্পিত ভাবেই। পরিকল্পনাটি হতে পারে আপনার ঈদের শাড়ি কিংবা পাঞ্জাবি শপিং কে ঘিরে অথবা ঘর সজ্জা সহ অন্যান্য বস্তুনিষ্ঠ সরঞ্জামকে ঘিরেই।

ঈদ সম্পর্কিত এমন ৫ টি আকর্ষণীয় বিষয় আছে যা মূলত ঈদ উৎসবে থাকবেই

ঘর সজ্জা home_decoration-daraz.com.bd

আপনার চারপাশের উৎসবমুখর আমেজ তৈরি করতে প্রথমেই যে বিষয়টি আলোচনায় আসে, সেটি হচ্ছে ঘর সজ্জা। ঘরে ঈদের অনুভূতি এনে দিয়ে এটা আপনার ঘরের চেহারাটাই অনেকাংশে বদলে দিবে। সবচেয়ে ভাল হয়, যদি ঈদের আগের দিনেই সব সাজসজ্জা সম্পন্ন করা যায়। এজন্য শেষ মূহুর্ত পর্যন্ত সবকিছু পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখাটা ঈদের আগ মূহুর্ত পর্যন্ত একটি ভাল ধারণা হিসেবেই গণ্য হয়।

রন্ধন

cooking-daraz.com.bd

 

সুস্বাদু খাবার ছাড়া ঈদ যে একেবারেই অসম্পূর্ণ, একথা নির্দ্বিধায় বলাই যায়। কিন্তু সবচেয়ে কঠিন বিষয় হয়ে দাঁড়ায় যে কি রান্না করতে হবে, সেটা যৌক্তিক উপায়ে নির্ধারণ করা। এক্ষেত্রে আপনার প্রিয়জনদের কাছ থেকে পরামর্শ নিয়ে ভাল কিছু রান্না করতে পারাটা সবচেয়ে ভাল সমাধান হিসেবে বিবেচ্য হতে পারে। এভাবে তাদের প্রত্যাশাটাও যথাযথভাবে পূরণ হতে পারে। পরিবারের সকল সদস্যদের পছন্দানুসারে বিরিয়ানি, কোরমা, শামি কাবাব ও শির খুরমা সেক্ষেত্রে ঈদের আমেজ খুব ভালভাবেই ধরে রাখতে সক্ষম হবে।

খাদ্যাভ্যাসfood_habit-daraz.com.bd

ঈদ মানেই সুস্বাদু খাবার। এসময় ঘরে-বাইরে, আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে কিংবা বন্ধুদের সাথে আড্ডায় অথবা পার্টিতে সব খানেই থাকে সুস্বাদু খাবারের অবিরত ছড়াছড়ি। আর তাই এসময় খাদ্যাভ্যাসেও তুলনামূলকভাবে সতর্ক থাকাটা অতীব জরুরী। একথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে ঈদে আপনার পরিমিত খাদ্যাভ্যাসে ঈদের আমেজ বহাল থাকবে আরো বহুলাংশে।

ছবি তোলা

clicking_photo-daraz.com.bd

 

 

ঈদ বছরে মাত্র দুবার আসে এবং আপনার পরিবারের সদস্যদের সাথে আনন্দঘন মুহূর্তগুলি উদযাপন এবং ভাগ করে নেওয়ার সময় হয়তো এই দুই ঈদেই আসে। আপনি নিশ্চয়ই সেই মুহুর্তগুলোকে সর্বোপরি ক্যাপচার করার সুযোগ কখনোই মিস করতে চাইবেন না। এজন্য ঈদে আপনার চেহারাকে আকর্ষণীয় রাখাটাও আবশ্যক! তাই ঈদ উদযাপন করতে পারেন আনন্দঘন সব মূহুর্তের সাক্ষী হয়ে থেকেই।

ঈদি বা সেলামি সংগ্রহeidi-daraz.com.bd

ঈদের সবচেয়ে প্রতীক্ষিত অংশ হয়তো সেলামি বা ঈদি! যে সময়টা সবার জন্যই একটি কাঙ্খিত মূহুর্ত হিসেবে ধরা দিয়ে থাকে। এসময় আপনি যত বেশি আত্মীয়ের সাথে সাক্ষাত করবেন, তত বেশি ঈদির মালিক খুব সহজেই বনে যেতে পারেন। তাই এই সুযোগ নিশ্চয় কেও মিস করতে চাইবেন না। বয়স ভেদে ছোট-বড় সবার ঈদের আমেজ বজায় থাকুক ঈদি বা সেলামি সংগ্রহের মাধ্যমেই। সবাইকে আবারও দারাজের পক্ষ থেকে পবিত্র ঈদের শুভেচ্ছা। আর এখন আর দোকানে গিয়ে ছেলেদের জুতা দেখান বলে ঈদের কেনাকাটা করতে হয় না।

আসন্ন কুরবানি ঈদ উপলক্ষে দারাজ ঈদ বিগ সেল ক্যাম্পেইন থেকে আকর্ষণীয় ডিল ও ডিসকাউন্ট অফার লুফে নিতে ভুলবেন না কিন্তু! আর অনলাইন গরুর হাট থেকে সেরা ডিল সমেত বাছাইকৃত ১০০% অর্গানিক গরু লুফে নেওয়ার সুযোগ তো থাকছেই। 

🕌 ঈদ মোবারক 🌛

earn money online

কিভাবে অনলাইনে টাকা আয় করতে পারবেন বাংলাদেশে (২০২১)?

সহজে টাকা ইনকাম বা আয় করার উপায় (২০২১)

টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে কি কি আছে তা অনেকেই জানতে চান। এমন অনেক লোক আছেন যারা ছাত্র থাকাকালীন বাংলাদেশে ঘরে বসে অনলাইনে টাকা আয় করার মাধ্যমে নিজের ব্যয় পরিচালনা করতে চান। আবার অনেকে বাংলাদেশের সেরা অনলাইন আর্নিং সাইট কোনটি বা কোনও খরচ ছাড়াই অনলাইনে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় বা কীভাবে অর্থ উপার্জন করতে হয়; সে সম্পর্কে জানতে চান। আপনি যদি ছাত্রদের জন্য অনলাইনে আয় বা শিক্ষার্থীদের জন্য কোন বিনিয়োগ ছাড়াই অনলাইনে কীভাবে ফ্রি টাকা ইনকাম করা যায় বা ঘরে বসে কিভাবে সহজে টাকা আয় করা যায়, সে ব্যাপারে জানতে আগ্রহী এবং বাংলাদেশের অনলাইন উপার্জনকারী সাইটগুলি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে উদগ্রীব, তবে আপনি সঠিক জায়গায় আছেন। আপনি কি টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট খুঁজছেন? তাহলে অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট অথবা অনলাইন ইনকাম সাইট ২০২১ লিখেও গুগোল সার্চ করতে পারেন। কিভাবে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে হয় তার সম্পূর্ণ গাইড অনুসরণ করে অনলাইনে ইনকাম করার উপায় (২০২১) জেনে আপনিও সহজেই বাংলাদেশে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। অনেকে ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই বলে গুগোলে সার্চ করে থাকেন; কিভাবে টাকা আয় করা যায় অথবা টাকা উপার্জন করা যায়, সেই আলোচনাই থাকছে আজকের পর্বে।

 কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় ২০২১

  • ইকমার্স সাইটগুলোতে বিক্রয় করুন
  • অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং দিয়ে অর্থোপার্জন করুন
  • একজন রিসেলার হয়ে হয়ে উঠুন
  • আপনার অল্প ব্যবহৃত পণ্য বিক্রয় করুন
  • রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের সাথে নিজেকে যুক্ত করুন
  • ফ্রিল্যান্সিং
  • আপনার গাড়িটি ভাড়ায় পরিচালনা করুন
  • জরিপ এর মাধ্যমে আয়
  • একজন গৃহশিক্ষক হয়ে উঠুন (অনলাইন / অফলাইন)
  • একটি ইউটিউব চ্যানেল শুরু করুন
  • একজন সফল ইনফ্লুয়েন্সার হয়ে উঠুন
  • একটি ব্লগ শুরু করুন
  • একজন লেখক হন
  • একজন পর্যালোচক হয়ে উঠুন
  • একজন খন্ডকালীন ফটোগ্রাফার হন
  • বিকাশের মাধ্যমে টাকা আয় করুন

আসুন এক ঝলক দেখে নেওয়া যাক কিভাবে বাংলাদেশে ঘরে বসে অনলাইনে বাংলাদেশি আর্নিং সাইট থেকে অর্থ উপার্জন করা যায়। আমাদের টিউটোরিয়ালটি অনুসরণ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন।

বাংলাদেশে অনলাইনে কিভাবে ইনকাম করা যায়?

১। ইকমার্স সাইটগুলোতে বিক্রয় করুন

বাংলাদেশে খুব সহজে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় এসব নিয়ে ভাবছেন? তবে সহজ একটি অনলাইন ইনকাম পদ্ধতি সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। যেহেতু ই-বাণিজ্য খাতটি দিন দিন দ্রুত বাড়ছে, দারাজ বাংলাদেশের মতো এত জনপ্রিয় ও সবচেয়ে বড় ইকমার্স ওয়েবসাইটে পণ্য বিক্রি করা এখন অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায় (2021) হিসেবে গণ্য হয়। কিভাবে দারাজে বিক্রয়কারী হিসেবে সাইন আপ করবেন তা জেনে আপনি সহজেই অনলাইনে বিক্রয় শুরু করতে পারেন। ঘরে বসে অর্থ উপার্জন করার এটাও একটি সুবর্ণ সুযোগ।

২। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং দিয়ে অর্থোপার্জন করুন

আপনার যদি কোনও ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল, বা ফেসবুক পেজ থেকে থাকে, তবে অর্থ উপার্জনের জন্য সেরা অনলাইন মাধ্যম হতে পারে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়? ফেসবুকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করা যায়। অনলাইনে নিশ্চিন্তে অর্থ উপার্জনের জন্য আপনি দারাজ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং প্রোগ্রামটিতে আস্থা রাখতে পারেন, যেখানে বিকাশ সহ অন্যান্য পেমেন্ট মেথড ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

৩। একজন রিসেলার হয়ে হয়ে উঠুন

একজন রিসেলার হয়েও বাংলাদেশে অর্থ উপার্জনের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। এজন্য আপনাকে পুনরায় বিক্রয় উপযোগী সঠিক পণ্যটি বেছে নিতে হবে এবং তারপর যথাসম্ভব সর্বনিম্ন পাইকারি দামে থেকে ক্রয় করতে হবে। এরপর আপনার নিজস্ব প্রফিট মার্জিন সেট করতে পারলেই সে অনুযায়ী পণ্য বিক্রয় করে একজন সফল রিসেলার হিসেবে লাভবান হতে পারবেন আপনিও।

৪। আপনার অল্প ব্যবহৃত পণ্য বিক্রয় করুন

আপনার পুরনো ব্যবহৃত যেসব অক্ষত জিনিস অযোথা বাসায় পড়ে আছে, সেসব দ্রব্য সামগ্রী বিক্রি করেও অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। বর্তমানে বাংলাদেশে বিক্রয় ডটকম, ইবাজার, ক্লিকবিডি সহ অসংখ্য পুরাতন মালামাল বিক্রির ওয়েবসাইট থেকে আপনি এই বিশেষ সুবিধা পেতে পারেন। এটাও শিক্ষার্থীদের জন্য বিনিয়োগ ব্যতীত অনলাইনে অর্থ উপার্জনের এক দুর্দান্ত উপায়।

৫। রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের সাথে নিজেকে যুক্ত করুন

আপনার যদি মোটরসাইকেল অথবা কার থেকে থাকে, তাহলে পাঠাও, উবার, ওভাই, সহজ প্রভৃতি রাইডিং সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সহজ আয়ের একটা বিশাল সুযোগ লুফে নিতে পারেন। এসব রাইডার ভিত্তিক সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে সাইন আপ করে আপনি অনলাইন আয়ের একটি মাধ্যম হিসেবে অর্থ উপার্জন শুরু করতে পারেন। এমন আরো অনেক অ্যাপ বা ওয়েবসাইট ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান থেকে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করা বেশ সহজ বটে। এছাড়া আপনি যদি সাইকেল দাম দিয়ে কিনে ফেলে রেখেছেন- এমন হয় তাহলে খুব সহজেই ফুড ডেলিভারি করে ভালো পরিমাণ অর্থ আয় করতে পারেন।

৬। ফ্রিল্যান্সিং

বাংলায় একটা প্রবাদ আছে, “থাকে কাজ তো সকালে সাজ, নেই কাজ তো খই ভাঁজ!” কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং বর্তমানে এতটাই লাভজনক যে পেশাটিকে বর্তমানে অনেকে চাকরি ও ব্যবসা এর উপরে প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। আর আপনি যদি সর্বাধিক নির্ভরযোগ্য অনলাইন অর্থোপার্জন উপযোগী সাইটগুলোর সন্ধান করে থাকেন বা ঘরে বসে কিভাবে আয় করা যায় তা জানতে চান, তবে ফ্রিল্যান্সিং সাইটগুলি আপনার জন্য সেরা সমাধান হতে পারে। আপনি আপওয়ার্ক, ফাইভার এবং ফ্রিল্যান্সার ডটকম এ আপনার দক্ষতা লিখে সহজেই অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে পারেন এবং ঘর থেকেই আপনার ক্লায়েন্টের জন্য কাজ করতে পারেন।

৭। আপনার গাড়িটি ভাড়ায় পরিচালনা করুন

আপনার যদি কোন গাড়ি থেকে থাকে তবে সেটা ভাড়ায় চালনা করে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব। অর্থাৎ গাড়ি ভাড়া দিয়েই আপনি কোন কাজ ছাড়াই খুব সহজে অর্থ উপার্জন করতে পারছেন। এখন অনলাইনে গাড়ি ভাড়া দিয়ে অর্থ উপার্জনের জন্য কয়েকটি সেরা অ্যাপ ও ওয়েবসাইট রয়েছে।

৮। জরিপ এর মাধ্যমে আয়

বাংলাদেশে টাকা আয় করার জন্য বর্তমানে বেশ কয়েকটি সেরা ওয়েবসাইট রয়েছে যা বিভিন্ন বিষয় জরিপের মাধ্যমে অনলাইনে ওয়েবসাইট থেকে আয় করার সুযোগ দেয়। অর্থ উপার্জনের জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট একটি জরিপে অংশ নিতে হবে। শিক্ষার্থীদের জন্য অনলাইনে টাকা আয় করার ওয়েবসাইট হিসেবে আপনি কয়েকটি সেরা অর্থের বিনিময়ে জরিপ সাইটগুলি খুঁজে পেতে পারেন।

৯। একজন গৃহশিক্ষক হয়ে উঠুন (অনলাইন / অফলাইন)

অফলাইনে ও অনলাইনে টাকা আয় করার অনেকগুলি উপায় রয়েছে। আর সেগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি হল টিউশন। কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের জন্য টিউশনি টাকা আয়ের এক দুর্দান্ত মাধ্যম হতে পারে। ছাত্র-ছাত্রীকে বাসায় গিয়ে পড়িয়ে অথবা ঘরে বসে অনলাইনে পড়ানোর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা এখন অনেক সহজ।

১০। একটি ইউটিউব চ্যানেল শুরু করুন

বাংলাদেশে বর্তমানে অনলাইনে টাকা আয়ের অতি উত্তম একটি মাধ্যম হল ইউটিউব। এটিকে বাংলাদেশের সেরা অনলাইন আয়ের সাইট হিসেবেও বিবেচনা করা হয়। আপনার যদি কোন ইউটিউব চ্যানেল থাকে তবে আপনি সহজেই অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে সক্ষম হবেন।

১১। একজন সফল ইনফ্লুয়েন্সার হয়ে উঠুন

বর্তমানে ইনফ্লুয়েন্সিং পেশাটি অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠতে শুরু করেছে। অনলাইনে সোশ্যাল মিডিয়া বিশেষ করে ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম অথবা ইউটিউব কিংবা ওয়েবসাইটের মাধ্যমেও আপনি একজন সফল ইনফ্লুয়েন্সার হয়ে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। এটি অনলাইনে টাকা ইনকাম করার একটি দুর্দান্ত উপায়। এই পেশার মাধ্যমে আপনি টার্গেট করা অডিয়েন্সকে প্রভাবিত করে কিছু নগদ টাকা আয় করে নিতে পারেন।

১২। একটি ব্লগ শুরু করুন

আপনি যদি কখনও অনলাইনে কিভাবে অর্থ উপার্জন করা যায় সেটা নিয়ে ভেবে থাকেন, তবে একটি ব্লগ শুরু করা হবে আপনার জন্য সহজ সমাধান। আপনি যদি গুগোল থেকে আপনার সাইটে একটি বড় অংকের অর্গানিক ট্র্যাফিক দখল করতে পারেন, তবে আপনার ওয়েবসাইটটি একটি আসল অনলাইন আয়ের সাইট হতে পারে।

১৩। একজন লেখক হন

আপনি যদি একজন লেখক হয়ে থাকেন, তবে ইজিটাইপিংজব এর মত প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য লেখালেখি করে টাকা আয় করতে পারবেন। বাংলাদেশের অনেক অনলাইন আর্নিং সাইটে কন্টেন্ট রাইটার হিসেবে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব।

১৪। একজন পর্যালোচক হয়ে উঠুন

রিভিউ বা পর্যালোচনা এখন অনলাইন মার্কেটিং এর প্রবল সম্ভাবনার প্রতীক। এখন অনলাইনে পণ্য রিভিউ করে ঘরে বসেই পর্যাপ্ত টাকা আয় করতে পারেন।

১৫। একজন খন্ডকালীন ফটোগ্রাফার হন

শাটারস্টক ডটকমের মতো অনেকগুলি সেরা ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে আপনার সেরা ক্যাপচার করা ফটোগ্রাফ গুলো তাদের কাছে বিক্রি করে কিছু আয় করার সুযোগ দেয়। কেবল কিছু দুর্দান্ত ফটোগ্রাফি করেই নগদ অর্থ উপার্জনের একটি দুর্দান্ত উপায় হতে পারে এটি।

১৬। বিকাশের মাধ্যমে টাকা আয় করুন

অনলাইনে ইনকাম করার জন্য আরো অনেক গুলো বাস্তব সুযোগ রয়েছে। যেমন বিকাশে টাকা ইনকাম করার উপায় হিসেবে আপনি ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে আয় করে বিকাশে টাকা পাচ্ছেন মোবাইলে। কিভাবে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে (2021) করা যায়, দেখে নিতে পারেন অনলাইনে। আপনি কি জানেন কিভাবে ভিডিও দেখে টাকা ইনকাম (২০২১) করা যায়? ভিডিও দেখে টাকা ইনকাম করে পেমেন্ট বিকাশে নিতে পারবেন বর্তমানে।

বাংলাদেশে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় আরো যেসব পদ্ধতিতে:

অনলাইনে কি কি কাজ করা যায় আর? গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে (2021) করা যায়। আরো টাকা ইনকাম করার গেম আছে যেমন লুডু খেলে টাকা ইনকাম, জাভা গেম খেলে টাকা আয়, তাস খেলে টাকা ইনকাম, free fire খেলে টাকা ইনকাম, quiz খেলে টাকা আয় এমনকি টিকটক ও লাইকি থেকে টাকা ইনকাম এখন অনেক সহজ। অনলাইনে গেম খেলে টাকা ইনকাম করার অ্যাপস খুঁজে পেতে গেম খেলে টাকা আয় 2020 বা গেম খেলে টাকা ইনকাম ২০২০ লিখে সার্চ করতে পারেন। আর google থেকে টাকা ইনকাম করতে এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি ও কিভাবে গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলব -এ সংক্রান্ত তথ্যে চোখ বুলিয়ে নিতে পারেন। আর টাকা আয় করার apps বা টাকা ইনকাম করার অ্যাপ অনলাইনে খুঁজে পেতে বাংলাদেশি app দিয়ে টাকা ইনকাম 2021 লিখে গুগোল সার্চ করতে পারেন। এক্ষেত্রে টাকা ইনকাম করার অ্যাপ ২০২১ লিখেও গুগোলে সার্চ করে দেখতে পারেন। আপনার মোবাইল দিয়ে টাকা আয় 2021 করা যায় কিভাবে সেটা জানার জন্য কিছু বিকাশে আয় করার সাইট দেখে নিতে পারেন। সেই সাথে ডলার আয় করার উপায় আছে অনলাইনে।

অনলাইনে উপার্জনের অনেকগুলি উপায় রয়েছে যেমন বাংলাদেশে বা পিপিসিতে বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয় বা ইনকাম, তবে এগুলোর মধ্যে অনেকগুলিই কেবল স্প্যাম। সুতরাং আপনার অনলাইন কাজ শুরু করার আগে আপনাকে অবশ্যই অনলাইন পেজ বা সাইটের সত্যতা পরীক্ষা করতে হবে। অনলাইনে কাজ শিখুন, আপনার দক্ষতা অনুযায়ী সহজেই কিছু অনলাইন কাজ পেতে পারেন। ভাগ্য সুপ্রসন্ন হোক।

eid shopping fest sale of daraz.com.bd

পবিত্র মাহে রমজানঃ রোজা শুরুর আগেই হোক প্রস্তুতি

বছর ঘুরে আবার চলে এল সিয়াম সাধনার মাস পবিত্র মাহে রমজান। আসন্ন ঈদ কে ঘিরে প্রতি বছর এই সময় ঘরে ঘরে আসে একটা আনন্দের আমেজ এবং তার সাথে থাকে ঈদ নিয়ে নানানরকম জল্পনা-কল্পনা। এই সময়টায় সাধারণ জীবনযাত্রায় চলে আসে আমূল পরিবর্তন, কিছুটা পরিকল্পনা মাফিক চলাফেরা করলে রমজান মাসটা কাটানো যাবে স্বস্তি আর স্বাচ্ছন্দ্যে। তাই আজকে আমি আপনাদের সুবিধার্থে দিয়ে দেব কিছু রমজানের টিপস এবং আইডিয়া।

প্রতিবারের মত এবারও রমজান মাসে, বাইরের তাপমাত্রা খুব একটা সহনীয় থাকবে না, তাই চেষ্টা করুন আগে থেকে রান্নার প্রয়োজনীয় সামগ্রী কিনে রাখতে যাতে রোজা রেখে অযথা জ্যাম ঠেলতে না হয়। সময় বাঁচাতে চাইলে ঘরে বসে দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মল দারাজেই সেরে ফেলতে পারবেন যাবতীয় কেনাকাটা।

দুঃসহ গরমে ইফতারের সময় এক গ্লাস ঠাণ্ডা জুস দূর করতে পারবে সারাদিনের ক্লান্তি। বাজারের কৃত্রিম উপাদানে তৈরি জুস না কিনে, তাজা ফলের রস খেতে চেষ্টা করুন এতে আপনি আরও সতেজ অনুভব করবেন। নিত্যদিন জুস বানানোর জন্য রমজানের আগেই কিনে নিতে পারেন জুসার ও ব্লেন্ডার মেশিন, যাতে প্রথম রোজার ইফতার শুরু করতে পারেন একটি স্বাস্থ্যপ্রদ উপায়ে।

রমজান মাস শুরু হওয়ার আগেই কিছুটা সেমি- প্রসেসে করে রাখতে পারেন ইফতারের বৈচিত্র্যময় আইটেম। এতে করে ইফতারের মেনুতে একঘেয়েমি আসবে না এবং রোজা রেখে আপনার সারাদিন রান্নাঘরে কষ্ট পোহাতে হবে না। খাবার প্রস্তুত করার জন্য দারাজের গ্রোসারি ক্যাটাগরিতেই পাবেন হরেক রকম মাছ, মাংস এবং নানা পদের সবজিজাত দ্রব্য।

প্রতিদিন রান্নায় নতুনত্ব আনা বেশ কঠিন হয়ে যাই, যখন অন্য হাজারো চিন্তা থাকে ঈদকে ঘিরে। সেক্ষেত্রে রমজানের আগেই তৈরি করে ফেলুন একটি সাপ্তাহিক মেনু প্ল্যান। এই প্ল্যান মেনে চললে, রোজ আপনার খাদ্য তালিকায় গুরুত্বপূর্ণ প্রোটিন, ফ্যাট এবং শর্করার পরিমাপ নিশ্চিত করতে পারবেন।

বছরের সবচেয়ে বড় উৎসবের প্রস্তুতি নিতে রমজানের আগেই সাজিয়ে ফেলুন আপনার বাজেট। প্রতি ক্ষেত্রে কতটা ব্যয় করবেন, যেমন চাকুরীজীবীদের ক্ষেত্রে ঈদ বোনাস এবং ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে বাড়তি ইনকাম বিশাল একটা ভূমিকা পালন করে বাজেট প্ল্যানিং-এ। একটু সময় করে বাজেট নিয়ে ভাবলে টাকা-পয়সা নিয়ে অযথা দুশ্চিন্তা মনে ভর করবে না। যেহেতু বাজেট প্ল্যানিং নিয়ে বলছি, একটা কথা অবশ্যই বলব দারাজ অনলাইন শপিং ওয়েবসাইটে(daraz.com.bd) চোখ রাখতে। পবিত্র রমজান উপলক্ষ্যে নানানরকম আকর্ষণীয় দামে এবং মূল্যছাড়ে পেয়ে যাবেন পছন্দের পণ্য আপনার স্বাদ এবং সাধ্যের মধ্যেই। রমজান ও ঈদের কেনাকাটা সহজে করতে চোখ রাখতে পারেন দারাজ ঈদ শপিং ফেষ্ট ক্যাম্পেইনে।

অবশেষে, উপরে উল্লেখিত টিপস অনুযায়ী রমজানের প্রস্তুতি নিলে আশা করি, বেশ আরামসেই কেটে যাবে এই বছরের রমজান মাস, এরপর শুধু থাকবে অধীর আগ্রহ নিয়ে রোজার ঈদের অপেক্ষা।

css.php