order from daraz boishakhi mela campaign

যেভাবে উদযাপন করতে পারেন এবারের বৈশাখ

পহেলা বৈশাখের ইতিহাস সম্পর্কে কে না জানে? বছর ঘুরে আবারও আসছে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। আবারও সময় আসছে রঙের এই উৎসবে নিজের চিত্তকে আরও রঙ্গিন করে তোলার। তাই চলুন জেনে নেই এই পহেলা বৈশাখে কেমন হতে পারে বৈশাখী খাবার, পোষাক ও স্টাইল।

ঘরোয়া পরিবেশে পহেলা বৈশাখ

অবশ্যই আগেভাগেই নিজে নিজে ঠিক করে ফেলুন এই পহেলা বৈশাখের দিনটি কিভাবে উদযাপন করবেন। যদি আপনি ভিড়, যানজট, ধুলোবালি এবং প্রখর রোদ থেকে নিজেকে দূরে রাখতে চান তাহলে, নিজের পরিবারের সাথে পান্তা-ইলিশ অথবা খিচুড়ি ইলিশ খেয়ে সকালটা শুরু করা যায়। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে প্রায় প্রতিটি টিভি চ্যানেলেই চলে বিশেষ অনুষ্ঠান, পান্তা-ইলিশ খেয়ে পরিবারের সাথে টিভিতে উপভোগ করতে পারেন অনুষ্ঠানগুলো। পান্তা- ইলিশের পর রোদ্র উত্তপ্ত দুপুরে ফ্যান-এসি ছেড়ে একটা আরামের ঘুম দিলে কিন্তু খারাপ হয়না। নাহলে, পছন্দের ল্যাপটপে মুভি দেখেও আয়েশ করে কাটিয়ে দিতে পারেন দিনটি।

ও হ্যাঁ, পাঞ্জাবী বা, লাল-পাড় সাদা মেয়েদের শাড়ি পড়ে আপনার মোবাইল দিয়ে অথবা, ক্যামেরা দিয়ে আপনার পরিবারের সাথে এই পহেলা বৈশাখের স্মৃতিটি ধারণ করতে ভুলবেন না।

আর আপনার যদি প্ল্যান থাকে এই পহেলা বৈশাখ আপনি আপনার প্রিয়জনদেরকে নিয়ে দিনটি ঘরের বাইরে উদযাপন করবেন এবং নিজেকে রাঙ্গিয়ে তুলবেন বাঙ্গালিয়ানার সব রঙে, তাহলে মনোযোগ দিয়ে পড়তে পারেন নিচের টিপস গুলো-

Bangladesh Dhaka GIF by GifGari

যেভাবে উদযাপন করতে পারেন নববর্ষের প্রথম দিনটি

পহেলা বৈশাখে কিন্তু অন্যান্য দিনের মত সাজলে বাঙ্গালিয়ানাটা ঠিক ষোলয়ানা পরিপূর্ণ হয় না। সেক্ষেত্রে যা যা পড়বেন এই পহেলা বৈশাখে,

মেয়েদের জন্য:

ঐতিহ্য ধরে রাখতে হলে মসলিন অথবা নেটের শাড়ি, লাল লিপস্টিক, লাল টিপের সাথে খোপা, বেনিতে অথবা, হাতে ফুল আপনাকে শুভ্র ও সতেজ দেখাতে সাহায্য করবে। অথবা, সাদা, লাল, অথবা, সোনালি রঙের শাড়ির সাথে ম্যারুন লিপস্টিক, লাল চুড়ি, লাল জুতো, লাল হ্যান্ডব্যাগ উৎস্‌বের রঙের সাথে আপনার মিল খুঁজে পেতে সাহায্য করবে।

আপনি যদি মেয়েদের শাড়িতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ না করে থাকেন, সেক্ষেত্রে সাদা, লাল, গোল্ডেন রঙের সালোয়ার কামিজ অথবা কুর্তি পড়তে পারেন। তার সাথে, চুলে কার্লার, টংস দিয়ে চুল একটু কা্‌‌র্লি করলে আপনার লুককে আসতে পারে ভিন্ন মাত্রা। অথবা, হেয়ার স্প্রে ব্যবহার করে মেসি বান ফুটিয়ে তুলতে পারে আপনার সাজকে।

করোনাভাইরাস: পহেলা বৈশাখের বাজারে ধস - BBC News বাংলা

এক্সেসরিজের মধ্যে পড়তে পারেন, গোল্ডেন ঘড়ি অথবা ব্রেসলেট এবং রোদ থেকে সুরক্ষায় সানগ্লাস। সাথে একটু কড়া ধরনের পারফিউম। মেকাপের বেলায়, চোখে হাল্কা মেকআপ আর, পোশাকের রং অনুযায়ী আই লাইনার ব্যাবহার করা উত্তম।

ছেলেদের জন্যঃ

ছেলেদের জন্য অবশ্যই বাঙ্গালীর ঐতিহ্যবাহী পোশাক হচ্ছে পাঞ্জাবী ও পায়জামা। তবে প্রখর রোদের কথা বিবেচনায় রাখলে কালো রঙের পাঞ্জাবী এড়িয়ে যাওয়াটাই ভালো। সাদা পাঞ্জাবী পহেলা বৈশাখের জন্য সর্বউৎকৃষ্ট। এর সাথে চামড়ার স্যান্ডেল, ভেস্ট, ঘড়ি, সানগ্লাস আপনার সাজকে করবে পরিপূর্ণ।

প্রসাধনীর মধ্যে আপনার চুলের জন্য হেয়ার জেল অথবা, ওয়াক্স। আর তার আগের দিন ট্রিমার ব্যাবহার করে আপনার লুককে করুন পারফেক্ট। প্রসাধনী হিসেবে হালকা পারফিউম করলে গরমে সতেজতা বজায় থাকবে।

কিন্তু এত প্রস্তুতি কিভাবে নিবেন?

এবার পহেলা বৈশাখের প্রস্তুতি আপনি নিতে পারবেন ঘরে বসেই। কারণ দারাজ আয়োজন করতে যাচ্ছে দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন বৈশাখী মেলা, দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৮। অভাবনীয় ছাড়সহ সেরা অনলাইন বৈশাখী কেনাকাটার জন্য ভিজিট করতে পারেন দারাজ পহেলা বৈশাখ এর এই বিশেষ ক্যাম্পেইন।

এছাড়া আরো দেখতে পারেন-
বছরের সবচাইতে বড় অনলাইন বৈশাখী মেলা

 

order from daraz boishakhi mela campaign

শুরু হচ্ছে বছরের সবচাইতে বড় বৈশাখী মেলা অনলাইনে!

দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৮

দারাজ বৈশাখী মেলায় সবাইকে স্বাগতম

দারাজ বাংলাদেশের পক্ষ থেকে সবাইকে বাংলা নতুন বছরের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায়, বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন শপিং মল দারাজ প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ক্রেতাদের কাছে হাজির হয়েছে দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন বৈশাখী মেলা ১৪২৮ নিয়ে। ক্রেতারা পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে এই বৃহৎ অনলাইন মেলায় উপভোগ করতে পারবেন বিভিন্ন পণ্যে আকর্ষণীয় ছাড়। চমক নিয়ে আসা দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন পহেলা বৈশাখ মেলায় দারাজ বাংলাদেশের সাথেই থাকুন।

বাংলা নিউ ইয়ার (নববর্ষ)

বাংলা নিউ ইয়ার হল বাংলা নতুন বছরের প্রথম মাস বৈশাখের প্রথম দিন। বাংলা ভাষায় “বাংলা নিউ ইয়ার” কে বলা হয় “পহেলা বৈশাখ”। সাধারণত পহেলা বৈশাখ দিনটা হয় ইংরেজি বছরের চতুর্থ মাস এপ্রিলের ১৪ তারিখ। শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের সমগ্র বাঙ্গালীরাই এ উৎসবটিকে ঐতিহ্যগতভাবে পালন করে আসছে।

pohela boishakh (পহেলা বৈশাখ) - Daraz BD (দারাজ)

বাংলা নিউ ইয়ার বা পহেলা বৈশাখের ঐতিহ্য ও উৎসব

পহেলা বৈশাখ বাঙ্গালীদের একটি ঐতিহ্যবাহী চিরায়ত উৎসব। এটি বাংলা পঞ্জিকার প্রথম দিন। বাঙ্গালীরা পহেলা বৈশাখ অনুষ্ঠানটিকে সবচেয়ে বেশী মর্যাদা দেয় এবং মনেপ্রাণে ভালবাসে। শুভাকাংখীদের “শুভ নববর্ষ” বলে স্বাগত জানায় এবং পুরনো বছরের সকল হিসেব-নিকেশ, দুঃখ-কষ্ট ভুলে “হালখাতা” নামক এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নববর্ষকে বরণ করে নেয়।

পহেলা বৈশাখের জন্য চাই বৈশাখী পোষাক

পহেলা বৈশাখের বিশেষ দিনে রমনার বটমূলে বর্ষবরণ করতে বের হওয়ার পরিকল্পনা মানেই বৈশাখী পোষাক কেনার ধুম। প্ল্যানমাফিক ড্রেসের সাথে সবকিছু ম্যাচ করে শপিং করা কিন্তু অতটা সহজসাধ্য কাজ নয়। তার উপর বিষয়টি যথেষ্ট সময় সাপেক্ষও বটে। মনের মত পোষাক আর ঠিকঠাক মত ম্যাচ না হলে কি আর বর্ষবরণ জমে? বিভিন্ন রঙের শাড়ী, পাঞ্জাবী, ফতুয়া, লুঙ্গি, ফ্ল্যাট স্যান্ডেল, সানগ্লাস, টিপ, হালকা জুয়েলারি, বৈশাখী ব্রেসলেট ছাড়াও বিভিন্ন রকমের পোষাক ও সরঞ্জামাদি কেনার ধুম পড়ে। সময় বাঁচিয়ে, সাশ্রয়ী দামে, ঠিকঠাক মত ম্যাচিং করে শপিং করার মত কষ্টকর কাজকে বর্তমান সময়ে এতোটা সহজ করবে অনলাইন শপিং, যা কেউ ভাবেনি আগে। ঘরে বসেই সময় নিয়ন্ত্রণে রেখে, এই যান্ত্রিক নগরীতে জ্যাম থেকে নিজেকে রক্ষা করে সহজেই এখন অনলাইনে শপিং করা যায়।

বৈশাখের প্রধান আকর্ষণ নারীদের শাড়ী আর পুরুষদের পাঞ্জাবী:

পহেলা বৈশাখ মানেই সবার চোখ অসাধারণ ডিজাইনের সব শাড়ি আর পাঞ্জাবির দিকে। পহেলা বৈশাখে বর্ষবরণে কি পড়ে যাবেন তা আগেই সবাই ভেবে রেখে নিজের শপিং আগেই শেষ করে রাখেন বৈশাখ আর ঐতিহ্যপ্রেমী বাঙ্গালীরা। পরিবারের সবার জন্য কেনাকাটা করার ধুম পড়ে সমগ্র বাংলায়। ছোট ছেলেদের পছন্দ ঐতিহ্যবাহী সব পাঞ্জাবী, ফতুয়া অথবা কোন কোন ক্ষেত্রে ফতুয়ার সাথে গামছা আর লুঙ্গি। মেয়েরা তো সুন্দর ডিজাইনের শাড়ী ছাড়া কিছু কিনবেই না!

দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৮ (২০২১) কত তারিখ থেকে শুরু হচ্ছে?

৪ এপ্রিল ২০২১ তারিখ, রোজ রবিবার। দারাজ বাংলাদেশের বাংলা নতুন বছরের বৈশাখী মেলায় এখন অনলাইনেই ঘরে বসেই আপনি পাবেন অসাধারণ সব বৈশাখী কালেকশন। সঙ্গে সময়ের সেরা মূল্যছাড় তো থাকছেই। দারাজ থেকে কিনতে পারেন ডিজাইনার পাঞ্জাবী, বৈশাখী শাড়ী, স্যান্ডেল, চুড়ি, টিপ, নানা ধরণের আকর্ষনীয় গহনা সহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের রকমারি পণ্য। এপ্রিলের ৪ তারিখ থেকে শুরু হওয়া এ মেলা চলবে একেবারে পহেলা বৈশাখ ১৪২৮ পর্যন্ত অর্থাৎ ১৪ এপ্রিল, ২০২১ পর্যন্ত।

pohela boishakh shopping pic

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মেলা

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মেলা হল দারাজ বৈশাখী মেলা। দারাজ বাংলাদেশ বাঙ্গালী ক্রেতাদের নববর্ষ উদযাপনের জন্য দিচ্ছে বিশাল মূল্যছাড়। আপনি মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, টেলিভিশন, পোশাক, জুতা, জিনিসপত্র এবং আরো অনেক পণ্যের জন্য অনলাইন শপিং-এর উপর অবিশ্বাস্য মূল্যছাড় পেতে যাচ্ছেন। কেবল ফ্যাশন নয়, স্যামসাং, এইচপি, মাইক্রোসফট, লেনোভো, বাটা, এপেক্স সহ বড় বড় ব্র্যান্ডের মেগা সেল ইভেন্টে ক্রেতারা কেনাকাটা করতে পারবেন খুব স্বাচ্ছন্দ্যেই এবং আস্থার সাথেই।

চোখ রাখুন দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৮ (২০২১) এর দিকে

বছরের সেরা ডিল গুলো পেতে চোখ রাখুন দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৮-এ। নিরাপদ অনলাইন শপিং করতে দারাজের সাথে থাকুন। প্রাণবন্ত অনলাইন শপিং করুন আর ঝক্কি-ঝামেলা কে বিদায় দিন এখনই।

যেকোন লোভনীয় ডিল ও ডিসকাউন্ট অফারের আপডেট পেতে ভিজিট করতে পারেন দারাজ বৈশাখী মেলা ক্যাম্পেইনে, চোখ রাখুন দারাজ বৈশাখী মেলা ব্লগ পেজে এখনই।

order from daraz boishakhi mela campaign

পহেলা বৈশাখ ১৪২৮ – ইতিহাস ও বৈশাখী মেলার আদ্যপান্ত

পহেলা বৈশাখ – ১ লা বৈশাখ ১৪২৮, ১৪ ই এপ্রিল ২০২১

পহেলা বৈশাখ কি?

বাঙ্গালীর উৎসব পহেলা বৈশাখ। পহেলা বৈশাখ বা নববর্ষ সুপ্রাচীন বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের অংশ। বাংলা পঞ্জিকার প্রথম মাস বৈশাখের প্রথম দিনটিকে পালন করা হয় বাংলা নববর্ষ অথবা বাঙ্গালীর বৈশাখী মেলা হিসেবে। এদিন বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নানা আড়ম্বর-আয়োজনের মাধ্যমে বরণ করে নেওয়া হয় নতুন বাংলা বছরকে। আগামী দিনের সম্ভবনা আর সমৃদ্ধি কামনায় উৎসবে মেতে ওঠে গোটা জনপদ।

পহেলা বৈশাখের ইতিহাস

বাংলা নববর্ষ বা পহেলা বৈশাখের ইতিহাসের সাথে জড়িয়ে আছে বাংলার সবুজ কৃষি নির্ভর সভ্যতা ও মুঘল সম্রাট আকবরের নাম। বাংলা পঞ্জিকা আসার আগে এদেশে কর আদায় করা হতো হিজরি পঞ্জিকা বা আরবী মাসের সাথে মিলিয়ে। কিন্তু চাঁদের উপর নির্ভরশীল আরবী পঞ্জিকার সাথে ফসল উৎপাদন ও খাজনা আদায়ের সময়কাল পুরোপুরি সুবিধাজনক না হওয়ায় সম্রাট আকবর প্রাচীন বাংলা বর্ষপঞ্জীতে সংস্কার আনেন। প্রথমদিকে এর নাম ছিলো ফসলি সন। পরে এটি বঙ্গাব্দ নামে পরিচিত হয়ে ওঠে।

পহেলা বৈশাখের গান

এসো হে বৈশাখ, এসো এসো…………………

পয়লা বা পহেলা বৈশাখ বাঙালির প্রাণের উৎসব। সারাদেশে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রবি ঠাকুরের চিরসবুজ গান ‘এসো হে বৈশাখ’-এর তালে তালে মেতে ওঠে গোটা জনপদের মানুষ। পহেলা বৈশাখের তাৎপর্য শুধুমাত্র আনন্দ-উৎসবেই সীমাবদ্ধ নয়- বরং এতে লুকিয়ে আছে পুরাতনকে সাথে নিয়ে, জরা-দুর্দশাকে শক্তিতে পরিণত করে সামনে এগিয়ে যাবার প্রত্যয়।

পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠান, খাবার ও সংস্কৃতি

প্রতি বছরের মতো এবারও নতুন বাংলা বছর ১৪২৮ সনকে বরণ করে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। ইংরেজী ক্যালেন্ডার অনুযায়ী পহেলা বৈশাখ ২০২১ সালের ১৪ এপ্রিল পালিত হবে। প্রচলিত বাংলা বর্ষবরণের অন্যান্য উপকরণের মতো এবারও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের তত্ত্বাবধানে মঙ্গল শোভাযাত্রা, রমনা বটমূলে পান্তা-ইলিশের সাথে সাথে পহেলা বৈশাখের কবিতা, ছবি, চিঠি ও সঙ্গীতের মাধ্যমে উদযাপন করা হবে নতুন বাংলা বছরকে। সাথে থাকবে বৈশাখী মেলা, নৌকা বাইচ, পুতুলনাচসহ আরো সব ঐতিহ্যবাহী আনন্দ-উৎসব অনুষঙ্গ।

নতুন সব বর্ণিল পোষাকে সজ্জিত নারী-পুরুষ-শিশুদের আনন্দ কোলাহলে বাংলা নববর্ষ বেঁচে থাকুক আরো হাজার বছর- বাংলা ও বাঙালির শেকড়ের উৎসব হিসেবে, নতুনকে জয় করা ও সামনে এগিয়ে যাবার প্রত্যয়ে।

পহেলা বৈশাখ – অনলাইন কেনাকাটা

নতুন বছরকে বরণ করতে নিশ্চিতভাবেই আপনার লাগবে বেশ কিছু অত্যাবশ্যকীয় বৈশাখী পোশাক, খাদ্য সামগ্রী ও বাহারী বৈশাখী উপকরণ। পয়লা বৈশাখে কেউ চাইবেন বৈশাখের রঙ্গে নিজেকে রাঙ্গাতে নতুন বৈশাখী পাঞ্জাবি কিংবা পহেলা বৈশাখের শাড়ি পড়তে। কেউবা চাইবেন পান্তা ইলিশ দিয়েই শুরু হবে নতুন বছর। কিংবা আপনার প্রয়োজন হতে পারে ঢোল, বাশি, ভূভুজেলা কিংবা ঐতিহ্যবাহী যে কোন বৈশাখী সরঞ্জাম। দারাজ অনলাইন শপ ক্রেতাদের জন্য তাই প্রতিবছরের ন্যায় এবারো আয়োজন করতে যাচ্ছে পহেলা বৈশাখ সেল উৎসব ১৪২৮ সাল। চলতি বছরের ৪ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া বৈশাখী ক্যাম্পেইনটি চলবে একেবারে পহেলা বৈশাখ(pohela boishakh) পর্যন্ত। শুভ নববর্ষ!

order from daraz boishakhi mela campaign

মেকআপ টিপস – কেমন হওয়া উচিত বৈশাখী সাজ?

সহজে জেনে নিন কেমন হবে এবারের বৈশাখী সাজ

কোটি বাঙ্গালির প্রাণের উৎসব বাংলা নববর্ষ। পহেলা বৈশাখ বা বছরের বিশেষ এই দিনটিতে বেশিরভাগ মেয়েরাই চেষ্টা করে শাড়ি-চুড়ি পরে ট্রেডিশনাল একটি লুক রাখার, আর সাথে থাকে হালকা মেক-আপের ছোয়া! কিন্তু বেজায় গরমের মধ্যে সবার একটাই চিন্তা থাকে কি করে মেক-আপ করলে তা অনেকক্ষন থাকবে আর পাশাপাশি এনে দিবে স্নিগ্ধতার ছটা। আসুন জেনে নেই কি ভাবে আমরা অল্প কিছু পণ্য ব্যবহার করেই পেতে পারি একটি অসাধারণ বৈশাখী লুক।

সবার আগে ক্লিনজিং টা আবশ্যক । কারন, প্রথমত বৈশাখের দিনটি তে থাকে প্রচণ্ড গরম, আর যাদের অয়েলি বা তেলতেলে স্কিন তাদের মেক-আপ করতে বেশ বেগ পেতে হয় তাই ভাল একটি ফেসিয়াল ক্লিনজার দিয়ে মুখ ধুয়ে নিলে মুখের তেলতেলে ভাব টাও চলে যাবে আর আপনার মুখে মেক-আপও বসবে বেশ সুন্দর ভাবে। ত্বকে ব্যাল্যান্স রাখার জন্যে ব্যবহার করতে হবে ময়েশ্চারাইজার এবং সেটি অবশ্যই হওয়া উচিত একটি জেল বেইসড লাইট ওয়েট ধরনের।

এবার আসি প্রিপ অ্যান্ড প্রাইমে। ফাউন্ডেশন দীর্ঘসময় ধরে রাখার ক্ষেত্রে সবচেয়ে জরুরি হচ্ছে প্রাইমার ও কন্সিলার। প্রাইমার ব্যবহার করে আপনি মুখের ফাইন লাইন ও পোরস ঢাকতে পারবেন। আর কন্সিলার ব্যাবহার করে আপনার মুখের ও চোখের নিচের যেকোনো কালো দাগ ঢাকা যাবে সহজেই।

এরপর আসে ফাউন্ডেশন বা বেইজ মেক-আপ। ফাউন্ডেশন কেনার ক্ষেত্রে অবশ্যই নিজের স্কিন টোনের থেকে এক শেড হালকা কিনতে হবে এবং এইটি অ্যাপলাই করার পর উইজ করতে হবে কমপ্যাক্ট পাউডার বা ফেইস পাউডার যা আপনার বেইজ মেক-আপ কে দিবে একটি কমপ্লিট লুক।

এখন আসা যাক আই মেক-আপ কিট প্রসঙ্গে। চোখটি সুন্দর করে না সাঁজালে কিন্তু আসলে পুরো লুকটাই অসম্পূর্ণ থেকে যায়, তাই চোখ কে বিভিন্ন রঙ্গে রাঙ্গাতে বাব্যহার করতে পারেন কালারফুল কন্টাক্ট লেন্স। চোখের পাতায় শাড়ির রঙের সাথে মিলিয়ে ব্যবহার করতে পারেন আই শ্যাডো। আর ফিনিশিং এ আইলাইনার ও চোখ বড় দেখানোর জন্যে ভ্লিউমাইজিং মাস্কারা।

সবশেষে, ঠোঁট! বৈশাখের পুরো লুকটা যদি লাল লিপস্টিক দিয়ে শেষ করা যায় তাহলে মনে হয় মন্দ হয়না কিন্তু লিপস্টিক টা হওয়া উচিত ফুল ম্যাট যাতে তা ছড়িয়ে না যায়। সবশেষে গালে একটু গোলাপি আভার ব্লাশন দিতে ভুলবেন না প্লিজ! ব্যস হয়ে গেল খুব সহজেই মাত্র কয়েকটা প্রোডাক্ট দিয়ে একটি অ্যামেইজিং বৈশাখী লুক!

আরো পড়ুনঃ নববর্ষে বৈশাখী সাজ

order from daraz boishakhi mela campaign

এ বছর যেমন হতে পারে মেয়েদের বৈশাখী সাজ!

সময়ের দরজায় পহেলা বৈশাখ কড়া নাড়ছে। আর মাত্র কটা দিন। বাতাসে পাওয়া যাচ্ছে উৎসবের গন্ধ। বাংলা নতুন বছরে এবার কিভাবে সাজবেন?

জেনে নিন বৈশাখী সাজের ৩টি সহজ টিপসঃ

১। শাড়িঃ

বৈশাখ বললেই চোখে ভাসে সাদা শাড়ি লাল পাড়। কারণ রমনার বটমূলে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে ছায়ানটের শিল্পীরা শুরু করেছিল এই সাজের চল।

buy women's saree from daraz.com.bd

আসলে কিন্তু বৈশাখে নতুন বছর বরণ করে নেয়ার খুশির সাথে যে কোন উজ্জ্বল রঙের পাড়ই খুব ভাল মানায়। এবার সাদা শাড়ি লাল পাড়ের পাশাপাশি গ্রীষ্মের রঙ হলুদ বা কমলা পাড়ের শাড়িও চেষ্টা করে দেখতে পারেন। এতে অন্যদের চেয়ে আলাদা ভাবে চোখে পড়বে আপনাকে।

২. মেকআপঃ

এই গরমে বাইরে বের হলেই প্রচুর ঘাম হবে। তাই ভুল করেও ভারি ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন না। সেজেগুজে বাইরে বেরিয়ে যদি মেকআপ গলে গলে পড়তে থাকে তাহলে আর এই সাজে লাভ কি?

হালকা কনসিলার ব্যবহার করে তার ওপর হালকা করে ফেস পাউডার লাগিয়ে নিন। এরপর গাঢ় করে করুন আই-মেকআপ। ব্রাউন বা গোল্ডেন আই শ্যাডো ব্যবহার করুন আর মোটা করে কাজল বা আইলাইনার টেনে, ঘন করে লাগান মাস্কারা। নকল পাঁপড়ি না লাগালেও চলবে দিনের এই হালকা সাজে। হালকা ব্লাশনের সাথে লাগান মানানসই ম্যাট লিপস্টিক।  কপালে বড় একটি টিপ পরতে ভুলবেন না যেন।

৩. গয়না/অ্যাক্সেসরিজঃ

বৈশাখী সাজে সোনা বা রূপার গয়না অ্যাভয়েড করাই ভাল। কাঠ, মাটি বা অ্যান্টিকের গয়না পরুন শাড়ির সাথে ম্যাচ করে। চুল লম্বা হলে খোঁপা করে একটি খোঁপার কাঁটা গুঁজে নিন। আর ছোট চুল হলে ব্লো-ড্রাই করে ফেলুন, সঙ্গে একটি ক্লিপ রাখুন যাতে করে বাইরে গেলে যদি বেশি গরম লাগে, চট করে চুল আটকে নিতে পারবেন। বৈশাখী সাজে ভ্যানিটি ব্যাগ পরিহার করা উচিত।  এর বদলে কাঁধে ঝুলিয়ে নিতে পারেন একটি ফ্যাশনেবল কাঁধ ব্যাগ।

ব্যাস, হয়ে গেলো আপনার বৈশাখী সাজ। সহজ হালকা সাজে উপভোগ করুন এবারের পহেলা বৈশাখ নতুন বছরের উল্লাসে। আর বৈশাখে প্রচুর পানি আর সরবত খেতে ভুলবেন না যেন, না হলে ডিহাইড্রেটেড হয়ে যাবেন কিন্তু।

আরও পড়ুনঃ

>>আসছে বছরের সবচেয়ে বড় বৈশাখী মেলা<<

pohela boishakh history

Pohela Boishakh: Origin, History, Culture & Facts

What is Pohela Boishakh/ Bangla New Year?

Bengali New Year is referred to in Bengali as “New Year” (Bengali: নববর্ষ Nôbobôrsho, from Sanskrit Nava(new) Barṣha(year) or “First of Boishakh” (Bengali: পহেলা বৈশাখ Pôhela Boishakh. Nobo means new and Borsho means year. In Bengali, Pohela stands for ‘first’ and Baishakh is first month of Bengali calendar. Read more

css.php