daraz eid shopping fest sale

৫ টি বিষয় যেটা প্রত্যেক ঈদেই ঘটে থাকে!

সবাইকে পবিত্র ঈদের শুভেচ্ছা

বছরের সবচেয়ে উৎসবমুখর সময় নিয়ে আবারো হাজির হতে চলেছে ঈদ! বছরের সবচেয়ে প্রতীক্ষিত এই দিনটিকে ঘিরেই মূলত আবর্তিত হয় আপনার সারা বছরের নানান পরিকল্পনা অনেকটা সুপরিকল্পিত ভাবেই। পরিকল্পনাটি হতে পারে আপনার ঈদের শাড়ি কিংবা পাঞ্জাবি শপিং কে ঘিরে অথবা ঘর সজ্জা সহ অন্যান্য বস্তুনিষ্ঠ সরঞ্জামকে ঘিরেই।

ঈদ সম্পর্কিত এমন ৫ টি আকর্ষণীয় বিষয় আছে যা মূলত ঈদ উৎসবে থাকবেই

ঘর সজ্জা home_decoration-daraz.com.bd

আপনার চারপাশের উৎসবমুখর আমেজ তৈরি করতে প্রথমেই যে বিষয়টি আলোচনায় আসে, সেটি হচ্ছে ঘর সজ্জা। ঘরে ঈদের অনুভূতি এনে দিয়ে এটা আপনার ঘরের চেহারাটাই অনেকাংশে বদলে দিবে। সবচেয়ে ভাল হয়, যদি ঈদের আগের দিনেই ঘরের সাজসজ্জা সম্পন্ন করা যায়। এজন্য শেষ মূহুর্ত পর্যন্ত সবকিছু পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখাটা ঈদের আগ মূহুর্ত পর্যন্ত একটি ভাল ধারণা হিসেবেই গণ্য হয়।

রন্ধন

cooking-daraz.com.bd

সুস্বাদু খাবার ছাড়া ঈদ যে একেবারেই অসম্পূর্ণ, একথা নির্দ্বিধায় বলাই যায়। কিন্তু সবচেয়ে কঠিন বিষয় হয়ে দাঁড়ায় যে কি রান্না করতে হবে এবং কোন ব্র্যান্ডের রান্নার উপাদান কিনলে খাবার বেশি সুস্বাদু হবে, সেটা যৌক্তিক উপায়ে নির্ধারণ করা। এক্ষেত্রে আপনার প্রিয়জনদের কাছ থেকে পরামর্শ নিয়ে ভাল কিছু রান্না করতে পারাটা সবচেয়ে ভাল সমাধান হিসেবে বিবেচ্য হতে পারে। এভাবে তাদের প্রত্যাশাটাও যথাযথভাবে পূরণ হতে পারে। পরিবারের সকল সদস্যদের পছন্দানুসারে বিরিয়ানি, কোরমা, শামি কাবাব ও শির খুরমা সেক্ষেত্রে ঈদের আমেজ খুব ভালভাবেই ধরে রাখতে সক্ষম হবে।

খাদ্যাভ্যাসfood_habit-daraz.com.bd

ঈদ মানেই সুস্বাদু খাবার। এসময় ঘরে-বাইরে, আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে কিংবা বন্ধুদের সাথে আড্ডায় অথবা পার্টিতে সব খানেই থাকে সুস্বাদু খাবারের অবিরত ছড়াছড়ি। আর তাই এসময় খাদ্যাভ্যাসেও তুলনামূলকভাবে সতর্ক থাকাটা অতীব জরুরী। একথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে ঈদে আপনার পরিমিত খাদ্যাভ্যাসে ঈদের আমেজ বহাল থাকবে আরো বহুলাংশে।

ছবি তোলা

clicking_photo-daraz.com.bd

 

ঈদ বছরে মাত্র দুবার আসে এবং আপনার পরিবারের সদস্যদের সাথে আনন্দঘন মুহূর্তগুলি উদযাপন এবং ভাগ করে নেওয়ার সময় হয়তো এই দুই ঈদেই আসে। আপনি নিশ্চয়ই সেই মুহুর্তগুলোকে একটি ভালো ডিএসএলআর ক্যামেরা কিংবা মিররলেস ক্যামেরা দিয়ে সর্বোপরি ক্যাপচার করার সুযোগ কখনোই মিস করতে চাইবেন না। এজন্য ঈদে আপনার চেহারাকে আকর্ষণীয় রাখাটাও আবশ্যক! তাই ঈদ উদযাপন করতে পারেন আনন্দঘন সব মূহুর্তের সাক্ষী হয়ে থেকেই।

ঈদি বা সেলামি সংগ্রহeidi-daraz.com.bd

ঈদের সবচেয়ে প্রতীক্ষিত অংশ হয়তো সেলামি বা ঈদি! যে সময়টা সবার জন্যই একটি কাঙ্খিত মূহুর্ত হিসেবে ধরা দিয়ে থাকে। এসময় আপনি যত বেশি আত্মীয়ের সাথে সাক্ষাত করবেন, তত বেশি ঈদির মালিক খুব সহজেই বনে যেতে পারেন। তাই এই সুযোগ নিশ্চয় কেও মিস করতে চাইবেন না। বয়স ভেদে ছোট-বড় সবার ঈদের আমেজ বজায় থাকুক ঈদি বা সেলামি সংগ্রহের মাধ্যমেই। সবাইকে আবারও দারাজের পক্ষ থেকে পবিত্র ঈদের শুভেচ্ছা। আর এখন আর দোকানে গিয়ে ছেলেদের জুতা দেখান বলে ঈদের কেনাকাটা করতে হয় না।

আসন্ন রোজার ঈদ উপলক্ষে দারাজ ঈদ শপিং ফেস্ট সেল ক্যাম্পেইন থেকে আকর্ষণীয় ডিল ও ডিসকাউন্ট অফার লুফে নিতে ভুলবেন না কিন্তু!

🕌 ঈদ মোবারক 🌛

final eid ul fitr date

When is the Eid ul Fitr 2022 in Bangladesh? The Final Eid ul Fitr Date 2022

Find When is Eid ul Fitr in Bangladesh 2022. See the Expected Date of Eid ul Fitr 2022 in Bangladesh with Notification of Eid ul Fitr 2022 Holidays in Bangladesh.

Eid 2022 is always a big festival for the Muslims. Muslim communities from all around the world will be anticipating this joyful festival of Eid ul Fitr 2022 at the end of the month long Ramadan 2022 fasts. Before we get into Eid in Bangladesh 2022 holiday notification and dates, make sure you know all about Rojar Eid 2022 in Bangladesh!

When is Eid ul Fitr 2022 in Bangladesh?

Eid ul Fitr 2022 in Bangladesh will be observed on Tuesday, 3 May 2022. Eid ul Fitr moon sighting is expected on the evening of Monday, 2 May 2022.

Eid ul Fitr Date in Bangladesh 2022

Eid ul Fitr 2022 in Bangladesh
Tuesday 3 May 2022 is the Eid ul Fitr in Bangladesh
Date Weekday Observance
2 May 2022 Monday Eid ul Fitr Holiday
3 May 2022 Tuesday Eid ul Fitr *
4 May 2022 Wednesday Eid ul Fitr Holiday

When are Eid Holidays in Bangladesh?

According to the official Eid holidays notification 2022, Bangladesh is going to observe a 3 days period of Eid holidays 2022. The national Eid holidays will be from 2 May to 4 May, 2022 in Bangladesh.

Is Eid ul Fitr moon sighted in Bangladesh?

The date for Eid ul Fitr 2022 in Bangladesh will be decided when the full moon is sighted on the 2nd May. Once the Ramadan calendar 2022 comes to an end, the authorities (Helal Committee) will look into the sky for a full moon sight. If the moon is sighted on 2nd May, the final Eid al Fitr 2022 date 3 May in Bangladesh for 2022 will be announced.

Eid 2022 in Bangladesh will be in about 30 days. Make sure you know your Ramadan Calendar 2022 for Bangladesh so that you can keep up with the updated date for Eid-ul-Fitr 2022 in Bangladesh. Through this article, keep yourself updated for the date of Eid-ul-Fitr 2022 in Bangladesh.

N.B: Eid ul Fitr is dependent on the Moon Sighting *

ramadan shopping at daraz

How to Survive Ramadan During This Heated Summer?

Ramadan is but a few days away and the summer will be at its very peak. This time, the summer is said to be worse than ever. With temperatures going up to 42 to 45 degrees in certain parts of the country, we need to be extra careful when it comes to self-care.

Here’s how to survive through the excessive heat of the summer

Get lots of water in your system

Staying hydrated is the key to surviving the summer but this can become tricky during Ramadan. While you can’t drink anything during the hottest hours of the day, you can pace the amount of drinking water that goes into your system. Get in a solid 6-8 cups as per any normal day.

Stay indoors

With work and home, we spend most of our day indoors anyway but a lot of us find ourselves under the sweltering sun for one reason or another. Try and avoid theses instances as much as possible but if you can’t don’t shy away from looking for shade. Get sun screen cream or even an umbrella to block out the sun as much as possible.

Eat lots of water-based fruits

It’s the season for water melons during this Ramadan. And if you have trouble eating fruits, you can always have fruit juice then instead. Besides, there is always an ideal choice of green coconut to get day long energy. So don’t feel guilty when it comes to consuming fruits. The natural sugar will give you loads of energy and the water content will keep you refreshed.

Stay away from deep fried oily foods

Though it’s hard enough to avoid fried fruits, the truth is that having fried foods everyday for 30 days can never be good for your system. These oily foods will slow you down sucking all the energy during Ramadan which you will badly need.

Don’t Skip Sehri 

It’s pretty much usual that some fasting people prefer a heavy dinner and like to skip Sehri. While it may be tempting to choose an extra hour of sleep over Sehri, skipping it increases the hours between meals and by the time you reach iftar, your body will have exhausted its resources. So, it’s the wise decision to take light dinner for the sake of heavy dinner meal to survive till iftar.

What’s your thought on the survival exit of hot weather, just let us know commenting below.

bangla new year sale 2022

যেভাবে উদযাপন করতে পারেন এবারের বৈশাখ

বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের ইতিহাস সম্পর্কে কে না জানে? বছর ঘুরে আবারও আসছে বাংলার ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক উৎসব পহেলা বৈশাখ। আবারও সময় আসছে রঙের এই উৎসবে নিজের বাঙালী চিত্তকে আরও রঙ্গিন করে তোলার। তাই, চলুন জেনে নেওয়া যাক এই পহেলা বৈশাখে কেমন হতে পারে বৈশাখী খাবার, পোশাক ও স্টাইল।

ঘরোয়া পরিবেশে পহেলা বৈশাখ

অবশ্যই আগেভাগেই নিজে নিজে ঠিক করে ফেলুন এই পহেলা বৈশাখের দিনটি কিভাবে উদযাপন করবেন। যদি আপনি ভিড়, যানজট, ধুলোবালি এবং প্রখর রোদ থেকে নিজেকে দূরে রাখতে চান, তাহলে নিজের পরিবারের সাথে পান্তা-ইলিশ খেয়ে সকালটা শুরু করতে পারেন। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে প্রায় প্রতিটি টিভি চ্যানেলেই চলে বিশেষ অনুষ্ঠান, পান্তা-ইলিশ খেয়ে পরিবারের সাথে টিভিতে উপভোগ করতে পারেন অনুষ্ঠানগুলো। পান্তা – ইলিশের পর রোদ্র উত্তপ্ত দুপুরে ফ্যান কিংবা এসি ছেড়ে একটা আরামের ভাত ঘুম দিলে কিন্তু মন্দ হয়না। তাছাড়া, পছন্দের ল্যাপটপে মুভি দেখেও আয়েশ করে কাটিয়ে দিতে পারেন দিনটি।

ও হ্যাঁ, বৈশাখী পাঞ্জাবি বা, লাল পাড়ওয়ালা সাদা বৈশাখী শাড়ি পরিধান করে আপনার মোবাইল দিয়ে অথবা, ক্যামেরা দিয়ে আপনার পরিবারের সাথে এই পহেলা বৈশাখের স্মৃতিটি ধারণ করতে ভুলবেন না।

আর আপনার যদি প্ল্যান থাকে এই পহেলা বৈশাখ আপনি আপনার প্রিয়জনদেরকে নিয়ে দিনটি ঘরের বাইরে উদযাপন করবেন এবং নিজেকে রাঙ্গিয়ে তুলবেন বাঙ্গালিয়ানার সব রঙে, তাহলে মনোযোগ দিয়ে পড়তে পারেন নিম্নোক্ত টিপস সমূহ। 

Bangladesh Dhaka GIF by GifGari

যেভাবে উদযাপন করতে পারেন নববর্ষের প্রথম দিনটি

পহেলা বৈশাখে কিন্তু অন্যান্য দিনের মত সাজলে বাঙ্গালিয়ানাটা ঠিক ষোলয়ানা পরিপূর্ণ হয় না। সেক্ষেত্রে যা যা পড়বেন এই পহেলা বৈশাখে,

মেয়েদের জন্য:

ঐতিহ্য ধরে রাখতে হলে মসলিন অথবা নেটের শাড়ি, লাল লিপস্টিক, লাল টিপের সাথে খোপা, বেনিতে অথবা, হাতে ফুল আপনাকে শুভ্র ও সতেজ দেখাতে সাহায্য করবে। অথবা, সাদা, লাল, অথবা, সোনালি রঙের শাড়ির সাথে ম্যারুন লিপস্টিক, লাল চুড়ি, লাল জুতো, লাল হ্যান্ডব্যাগ উৎসবের রঙের সাথে আপনার মিল খুঁজে পেতে সাহায্য করবে।

আপনি যদি মেয়েদের শাড়িতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ না করে থাকেন, সেক্ষেত্রে সাদা, লাল, গোল্ডেন রঙের সালোয়ার কামিজ অথবা কুর্তি পড়তে পারেন। তার সাথে, চুলে কার্লার, টংস দিয়ে চুল একটু কা্‌‌র্লি করলে আপনার লুককে আসতে পারে ভিন্ন মাত্রা। অথবা, হেয়ার স্প্রে ব্যবহার করে মেসি বান ফুটিয়ে তুলতে পারে আপনার সাজকে।

করোনাভাইরাস: পহেলা বৈশাখের বাজারে ধস - BBC News বাংলা

এক্সেসরিজের মধ্যে পড়তে পারেন, গোল্ডেন ছেলেদের হাত ঘড়ি অথবা ব্রেসলেট এবং রোদ থেকে সুরক্ষায় ছেলেদের সানগ্লাস; সাথে একটু কড়া ঘ্রাণের পারফিউম ও বডি স্প্রে। মেকাপের বেলায়, চোখে হাল্কা মেকআপ আর, পোশাকের রং অনুযায়ী আই লাইনার ব্যাবহার করা উত্তম।

ছেলেদের জন্যঃ

ছেলেদের জন্য অবশ্যই বাঙ্গালীর ঐতিহ্যবাহী পোশাক হচ্ছে পাঞ্জাবী ও পায়জামা। তবে প্রখর রোদের কথা বিবেচনায় রাখলে কালো রঙের পাঞ্জাবী এড়িয়ে যাওয়াটাই ভালো। সাদা পাঞ্জাবী পহেলা বৈশাখের জন্য সর্বউৎকৃষ্ট। এর সাথে চামড়ার স্যান্ডেল, ভেস্ট, ঘড়ি, সানগ্লাস আপনার সাজকে করবে পরিপূর্ণ।

প্রসাধনীর মধ্যে আপনার চুলের জন্য হেয়ার জেল অথবা, ওয়াক্স। আর তার আগের দিন ট্রিমার ব্যাবহার করে আপনার লুককে করুন পারফেক্ট। প্রসাধনী হিসেবে হালকা পারফিউম করলে গরমে সতেজতা বজায় থাকবে।

কিন্তু এত প্রস্তুতি কিভাবে নিবেন?

এবার পহেলা বৈশাখের প্রস্তুতি আপনি নিতে পারবেন ঘরে বসেই। কারণ দারাজ আয়োজন করতে যাচ্ছে দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন বৈশাখী মেলা, দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৯। অভাবনীয় ছাড়সহ সেরা অনলাইন বৈশাখী কেনাকাটার জন্য ভিজিট করতে পারেন দারাজ পহেলা বৈশাখ এর এই বিশেষ ক্যাম্পেইন।

এছাড়া আরো দেখতে পারেন-
বছরের সবচাইতে বড় অনলাইন বৈশাখী মেলা

bangla new year sale 2022

আবার শুরু হচ্ছে বছরের সবচাইতে বড় বৈশাখী মেলা অনলাইনে!

দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৯

দারাজ বৈশাখী মেলায় সবাইকে স্বাগতম

দারাজ বাংলাদেশের পক্ষ থেকে সবাইকে বাংলা নতুন বছরের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায়, বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন শপিং মল দারাজ প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ক্রেতাদের কাছে হাজির হয়েছে দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন বৈশাখী মেলা ১৪২৯ নিয়ে। ক্রেতারা বৈশাখী মেলায় উপভোগ করতে পারবেন বিভিন্ন পণ্যে আকর্ষণীয় ছাড়। চমক নিয়ে আসা দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন পহেলা বৈশাখ মেলায় দারাজ বাংলাদেশের সাথেই থাকুন।

বাংলা নিউ ইয়ার (নববর্ষ)

বাংলা নিউ ইয়ার বা নববর্ষ হল বাংলা নতুন বছরের প্রথম মাস বৈশাখের প্রথম দিন। বাংলা ভাষায় “বাংলা নববর্ষ” কে বলা হয় “পহেলা বৈশাখ”। সাধারণত পহেলা বৈশাখ দিনটা হয় ইংরেজি বছরের চতুর্থ মাস এপ্রিলের ১৪ তারিখ। শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের সমগ্র বাঙ্গালীরাই এ উৎসবটিকে ঐতিহ্যগতভাবে পালন করে আসছে।

pohela boishakh (পহেলা বৈশাখ) - Daraz BD (দারাজ)

বাংলা নববর্ষ বা পহেলা বৈশাখের ঐতিহ্য ও উৎসব

পহেলা বৈশাখ বাঙ্গালীদের একটি ঐতিহ্যবাহী চিরায়ত উৎসব। এটি বাংলা পঞ্জিকার প্রথম দিন। বাঙ্গালীরা পহেলা বৈশাখ অনুষ্ঠানটিকে সবচেয়ে বেশী মর্যাদা দেয় এবং মনেপ্রাণে ভালবাসে। শুভাকাংখীদের “শুভ নববর্ষ” বলে স্বাগত জানায় এবং পুরনো বছরের সকল হিসেব-নিকেশ, দুঃখ-কষ্ট ভুলে “হালখাতা” নামক এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নববর্ষকে বরণ করে নেয়।

পহেলা বৈশাখের জন্য চাই বৈশাখী পোশাক

পহেলা বৈশাখের বিশেষ দিনে রমনার বটমূলে বর্ষবরণ করতে বের হওয়ার পরিকল্পনা মানেই বৈশাখী পোষাক কেনার ধুম। প্ল্যানমাফিক ড্রেসের সাথে সবকিছু ম্যাচ করে শপিং করা কিন্তু অতটা সহজসাধ্য কাজ নয়। তার উপর বিষয়টি যথেষ্ট সময় সাপেক্ষও বটে। মনের মত পোষাক আর ঠিকঠাক মত ম্যাচ না হলে কি আর বর্ষবরণ জমে? বিভিন্ন রঙের শাড়ী, পাঞ্জাবী, ফতুয়া, লুঙ্গি, ফ্ল্যাট স্যান্ডেল, সানগ্লাস, টিপ, হালকা জুয়েলারি, বৈশাখী ব্রেসলেট ছাড়াও বিভিন্ন রকমের পোষাক ও সরঞ্জামাদি কেনার ধুম পড়ে। সময় বাঁচিয়ে, সাশ্রয়ী দামে, ঠিকঠাক মত ম্যাচিং করে শপিং করার মত কষ্টকর কাজকে বর্তমান সময়ে এতোটা সহজ করবে অনলাইন শপিং, যা কেউ ভাবেনি আগে। ঘরে বসেই সময় নিয়ন্ত্রণে রেখে, এই যান্ত্রিক নগরীতে জ্যাম থেকে নিজেকে রক্ষা করে সহজেই এখন অনলাইনে শপিং করা যায়।

বৈশাখের প্রধান আকর্ষণ নারীদের শাড়ি আর পুরুষদের পাঞ্জাবি

পহেলা বৈশাখ মানেই সবার চোখ অসাধারণ ডিজাইনের সব শাড়ি আর পাঞ্জাবির দিকে। পহেলা বৈশাখে বর্ষবরণে কি পড়ে যাবেন তা আগেই সবাই ভেবে রেখে নিজের শপিং আগেই শেষ করে রাখেন বৈশাখ আর ঐতিহ্যপ্রেমী বাঙ্গালীরা। পরিবারের সবার জন্য কেনাকাটা করার ধুম পড়ে সমগ্র বাংলায়। ছোট ছেলেদের পছন্দ ঐতিহ্যবাহী সব পাঞ্জাবী, ফতুয়া অথবা কোন কোন ক্ষেত্রে ফতুয়ার সাথে গামছা আর লুঙ্গি। মেয়েরা তো সুন্দর ডিজাইনের শাড়ী ছাড়া কিছু কিনবেই না!

দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৯ কত তারিখ থেকে শুরু হচ্ছে?

১লা এপ্রিল, ২০২২ তারিখ, রোজ শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া দারাজ বাংলাদেশের বাংলা নতুন বছরের বৈশাখী মেলায় এখন অনলাইনেই ঘরে বসেই আপনি পাবেন অসাধারণ সব বৈশাখী কালেকশন। সঙ্গে সময়ের সেরা মূল্যছাড় তো থাকছেই। দারাজ থেকে কিনতে পারেন ডিজাইনার বৈশাখী পাঞ্জাবি, বৈশাখী শাড়ি, স্যান্ডেল, চুড়ি, টিপ, নানা ধরণের আকর্ষনীয় গহনা সহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের রকমারি পণ্য। এপ্রিল এর ১ তারিখ থেকে শুরু হওয়া এই মেলা চলবে একেবারে পহেলা বৈশাখ ১৪২৯ পর্যন্ত অর্থাৎ ১৪ এপ্রিল, ২০২২ পর্যন্ত।

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মেলা

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মেলা হল দারাজ বৈশাখী মেলা। দারাজ বাংলাদেশ বাঙ্গালী ক্রেতাদের নববর্ষ উদযাপনের জন্য দিচ্ছে বিশাল মূল্যছাড়। আপনি মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, টেলিভিশন, পোশাক, জুতা, জিনিসপত্র এবং আরো অনেক পণ্যের জন্য অনলাইন শপিং-এর উপর অবিশ্বাস্য মূল্যছাড় পেতে যাচ্ছেন। কেবল ফ্যাশন নয়, স্যামসাং, এইচপি, মাইক্রোসফট, লেনোভো, বাটা, এপেক্স সহ বড় বড় ব্রান্ডের মেগা সেল ইভেন্টে ক্রেতারা কেনাকাটা করতে পারবেন খুব স্বাচ্ছন্দ্যেই এবং আস্থার সাথেই।

চোখ রাখুন দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৯ ক্যাম্পেইনে

বছরের সেরা ডিল গুলো পেতে চোখ রাখুন দারাজ বৈশাখী মেলা ১৪২৯ সনে। নিরাপদ অনলাইন শপিং করতে দারাজের সাথে থাকুন। প্রাণবন্ত অনলাইন শপিং করুন আর ঝক্কি-ঝামেলা কে বিদায় দিন এখনই।

দারাজের যেকোন আপডেট পেতে ভিজিট করুন দারাজ অফিশিয়াল ব্লগে। চোখ রাখুন দারাজ অনলাইন শপিং ওয়েবসাইটে এবং সেরা ডিল লুফে নিতে ডাউনলোড করুন দারাজ অ্যাপ।

শুভ নববর্ষ

iftar and sehri time in bd 2022

BD Ramadan Calendar 2022 – Sehri & Iftar Time Today in Bangladesh

Looking for the Iftar and Sehri time in Dhaka today 2022 for Ramadan? If you search for the iftar and sehri time today at my location, the Ramadan calendar 2022 stats that the Sehri time will be at 4:27 AM and the Iftar time will start from 6:19 PM as Ramadan 2022 will begin in the evening of Sunday, 3rd April in Bangladesh.  

Iftar and Sehri time 2022 in Bangladesh

Dhaka Iftar and Sehri Time 2022

Ramadan Calendar – 2022 For Dhaka
Iftar and Sehri Time for Dhaka in 2022

Ramadan DATE SEHRI IFTAR
1 03 April 2022 04:27 am 06:19 pm
2 04 April 2022 04:26 am 06:19 pm
3 05 April 2022 04:24 am 06:20 pm
4 06 April 2022 04:24 am 06:20 pm
5 07 April 2022 04:23 am 06:21 pm
6 08 April 2022 04:22 am 06:21 pm
7 09 April 2022 04:21 am 06:21 pm
8 10 April 2022 04:20 am 06:22 pm
9 11 April 2022 04:19 am 06:22 pm
10 12 April 2022 04:18 am 06:23 pm
11 13 April 2022 04:17 am 06:23 pm
12 14 April 2022 04:15 am 06:23 pm
13 15 April 2022 04:14 am 06:24 pm
14 16 April 2022 04:13 am 06:24 pm
15 17 April 2022 04:12 am 06:24 pm
16 18 April 2022 04:11 am 06:25 pm
17 19 April 2022 04:10 am 06:25 pm
18 20 April 2022 04:09 am 06:26 pm
19 21 April 2022 04:08 am 06:26 pm
20 22 April 2022 04:07 am 06:27 pm
21 23 April 2022 04:06 am 06:27 pm
22 24 April 2022 04:05 am 06:28 pm
23 25 April 2022 04:05 am 06:28 pm
24 26 April 2022 04:04 am 06:29 pm
25 27 April 2022 04:03 am 06:29 pm
26 28 April 2022 04:02 am 06:29 pm
27 29 April 2022 04:01 am 06:30 pm
28 30 April 2022 04:00 am 06:30 pm
29 01 May 2022 03:59 am 06:31 pm
30 02 May 2022 03:58 am 06:31 pm
SOURCE: Islamic Foundation

Chittagong Iftar and Sehri Time 2022

Ramadan Calendar – 2022 For Chittagong (Chattogram)
Iftar and Sehri Time for Chittagong (Chattogram) in 2022

Ramadan DATE SEHRI IFTAR
1 03 April 2022 4:28 am 6:10 pm
2 04 April 2022 4:27 am 6:10 pm
3 05 April 2022 4:26 am 6:10 pm
4 06 April 2022 4:25 am 6:11 pm
5 07 April 2022 4:24 am 6:11 pm
6 08 April 2022 4:22 am 6:11 pm
7 09 April 2022 4:21 am 6:12 pm
8 10 April 2022 4:20 am 6:12 pm
9 11 April 2022 4:19 am 6:12 pm
10 12 April 2022 4:18 am 6:13 pm
11 13 April 2022 4:17 am 6:13 pm
12 14 April 2022 4:16 am 6:14 pm
13 15 April 2022 4:15 am 6:14 pm
14 16 April 2022 4:14 am 6:14 pm
15 17 April 2022 4:13 am 6:15 pm
16 18 April 2022 4:12 am 6:15 pm
17 19 April 2022 4:11 am 6:15 pm
18 20 April 2022 4:10 am 6:16 pm
19 21 April 2022 4:10 am 6:16 pm
20 22 April 2022 4:09 am 6:17 pm
21 23 April 2022 4:08 am 6:17 pm
22 24 April 2022 4:07 am 6:17 pm
23 25 April 2022 4:06 am 6:18 pm
24 26 April 2022 4:05 am 6:18 pm
25 27 April 2022 4:04 am 6:19 pm
26 28 April 2022 4:03 am 6:19 pm
27 29 April 2022 4:02 am 6:19 pm
28 30 April 2022 4:01 am 6:20 pm
29 01 May 2022 4:00 am 6:21 pm
30 02 May 2022 3:59 am 6:21 pm
SOURCE: Islamic Foundation

Sylhet Iftar and Sehri Time 2022

Ramadan Calendar – 2022 For Sylhet
Iftar and Sehri Time for Sylhet in 2022

Ramadan DATE SEHRI IFTAR
1 03 April 2022 4:25 am 6:11 pm
2 04 April 2022 4:23 am 6:11 pm
3 05 April 2022 4:22 am 6:11 pm
4 06 April 2022 4:21 am 6:12 pm
5 07 April 2022 4:20 am 6:12 pm
6 08 April 2022 4:19 am 6:13 pm
7 09 April 2022 4:18 am 6:13 pm
8 10 April 2022 4:17 am 6:14 pm
9 11 April 2022 4:16 am 6:14 pm
10 12 April 2022 4:14 am 6:14 pm
11 13 April 2022 4:13 am 6:15 pm
12 14 April 2022 4:12 am 6:15 pm
13 15 April 2022 4:11 am 6:16 pm
14 16 April 2022 4:10 am 6:16 pm
15 17 April 2022 4:09 am 6:17 pm
16 18 April 2022 4:08 am 6:17 pm
17 19 April 2022 4:07 am 6:18 pm
18 20 April 2022 4:06 am 6:18 pm
19 21 April 2022 4:05 am 6:19 pm
20 22 April 2022 4:04 am 6:19 pm
21 23 April 2022 4:03 am 6:19 pm
22 24 April 2022 4:02 am 6:20 pm
23 25 April 2022 4:01 am 6:20 pm
24 26 April 2022 4:00 am 6:21 pm
25 27 April 2022 3:59 am 6:21 pm
26 28 April 2022 3:58 am 6:22 pm
27 29 April 2022 3:57 am 6:22 pm
28 30 April 2022 3:56 am 6:23 pm
29 01 May 2022 3:55 am 6:23 pm
30 02 May 2022 3:54 am 6:24 pm
SOURCE: Islamic Foundation

Khulna Iftar and Sehri Time 2022

Ramadan Calendar – 2022 For Khulna
Iftar and Sehri Time for Khulna in 2022

Ramadan DATE SEHRI IFTAR
1 03 April 2022 4:36 am 6:19 pm
2 04 April 2022 4:35 am 6:19 pm
3 05 April 2022 4:34 am 6:20 pm
4 06 April 2022 4:33 am 6:20 pm
5 07 April 2022 4:32 am 6:20 pm
6 08 April 2022 4:31 am 6:21 pm
7 09 April 2022 4:30 am 6:21 pm
8 10 April 2022 4:29 am 6:21 pm
9 11 April 2022 4:28 am 6:22 pm
10 12 April 2022 4:27 am 6:22 pm
11 13 April 2022 4:26 am 6:23 pm
12 14 April 2022 4:25 am 6:23 pm
13 15 April 2022 4:24 am 6:23 pm
14 16 April 2022 4:23 am 6:24 pm
15 17 April 2022 4:22 am 6:24 pm
16 18 April 2022 4:21 am 6:24 pm
17 19 April 2022 4:20 am 6:25 pm
18 20 April 2022 4:19 am 6:25 pm
19 21 April 2022 4:18 am 6:26 pm
20 22 April 2022 4:17 am 6:26 pm
21 23 April 2022 4:16 am 6:26 pm
22 24 April 2022 4:15 am 6:27 pm
23 25 April 2022 4:14 am 6:27 pm
24 26 April 2022 4:13 am 6:28 pm
25 27 April 2022 4:12 am 6:28 pm
26 28 April 2022 4:11 am 6:29 pm
27 29 April 2022 4:10 am 6:29 pm
28 30 April 2022 4:09 am 6:29 pm
29 01 May 2022 4:08 am 6:30 pm
30 02 May 2022 4:07 am 6:30 pm
SOURCE: Islamic Foundation

Barisal Iftar and Sehri Time 2022

Ramadan Calendar – 2022 For Barisal
Iftar and Sehri Time for Barisal in 2022

Ramadan DATE SEHRI IFTAR
1 03 April 2022 4:33 am 6:16 pm
2 04 April 2022 4:32 am 6:16 pm
3 05 April 2022 4:31 am 6:16 pm
4 06 April 2022 4:30 am 6:17 pm
5 07 April 2022 4:29 am 6:17 pm
6 08 April 2022 4:28 am 6:17 pm
7 09 April 2022 4:27 am 6:18 pm
8 10 April 2022 4:26 am 6:18 pm
9 11 April 2022 4:25 am 6:18 pm
10 12 April 2022 4:24 am 6:19 pm
11 13 April 2022 4:23 am 6:19 pm
12 14 April 2022 4:22 am 6:20 pm
13 15 April 2022 4:21 am 6:20 pm
14 16 April 2022 4:20 am 6:20 pm
15 17 April 2022 4:19 am 6:21 pm
16 18 April 2022 4:18 am 6:21 pm
17 19 April 2022 4:17 am 6:21 pm
18 20 April 2022 4:16 am 6:22 pm
19 21 April 2022 4:15 am 6:22 pm
20 22 April 2022 4:14 am 6:23 pm
21 23 April 2022 4:13 am 6:23 pm
22 24 April 2022 4:12 am 6:23 pm
23 25 April 2022 4:11 am 6:24 pm
24 26 April 2022 4:10 am 6:24 pm
25 27 April 2022 4:09 am 6:25 pm
26 28 April 2022 4:08 am 6:25 pm
27 29 April 2022 4:07 am 6:26 pm
28 30 April 2022 4:06 am 6:26 pm
29 01 May 2022 4:05 am 6:27 pm
30 02 May 2022 4:04 am 6:28 pm
SOURCE: Islamic Foundation

Rajshahi Iftar and Sehri Time 2022

Ramadan Calendar – 2022 For Rajshahi
Iftar and Sehri Time for Rajshahi in 2022

Ramadan DATE SEHRI IFTAR
1 03 April 2022 4:38 am 6:23 pm
2 04 April 2022 4:37 am 6:24 pm
3 05 April 2022 4:36 am 6:24 pm
4 06 April 2022 4:35 am 6:25 pm
5 07 April 2022 4:34 am 6:25 pm
6 08 April 2022 4:33 am 6:25 pm
7 09 April 2022 4:32 am 6:26 pm
8 10 April 2022 4:31 am 6:26 pm
9 11 April 2022 4:29 am 6:27 pm
10 12 April 2022 4:28 am 6:27 pm
11 13 April 2022 4:27 am 6:28 pm
12 14 April 2022 4:26 am 6:28 pm
13 15 April 2022 4:25 am 6:28 pm
14 16 April 2022 4:24 am 6:29 pm
15 17 April 2022 4:23 am 6:29 pm
16 18 April 2022 4:22 am 6:30 pm
17 19 April 2022 4:21 am 6:30 pm
18 20 April 2022 4:20 am 6:31 pm
19 21 April 2022 4:19 am 6:31 pm
20 22 April 2022 4:18 am 6:32 pm
21 23 April 2022 4:17 am 6:32 pm
22 24 April 2022 4:16 am 6:32 pm
23 25 April 2022 4:15 am 6:33 pm
24 26 April 2022 4:14 am 6:33 pm
25 27 April 2022 4:13 am 6:34 pm
26 28 April 2022 4:12 am 6:34 pm
27 29 April 2022 4:11 am 6:35 pm
28 30 April 2022 4:10 am 6:35 pm
29 01 May 2022 4:09 am 6:36 pm
30 02 May 2022 4:08 am 6:36 pm
SOURCE: Islamic Foundation

Mymensingh Iftar and Sehri Time 2022

Ramadan Calendar – 2022 For Mymensingh
Iftar and Sehri Time for Mymensingh in 2022

Ramadan DATE SEHRI IFTAR
1 03 April 2022 4:31 am 6:16 pm
2 04 April 2022 4:29 am 6:17 pm
3 05 April 2022 4:28 am 6:17 pm
4 06 April 2022 4:27 am 6:18 pm
5 07 April 2022 4:26 am 6:18 pm
6 08 April 2022 4:25 am 6:19 pm
7 09 April 2022 4:24 am 6:19 pm
8 10 April 2022 4:23 am 6:19 pm
9 11 April 2022 4:22 am 6:20 pm
10 12 April 2022 4:21 am 6:20 pm
11 13 April 2022 4:19 am 6:21 pm
12 14 April 2022 4:18 am 6:21 pm
13 15 April 2022 4:17 am 6:22 pm
14 16 April 2022 4:16 am 6:22 pm
15 17 April 2022 4:15 am 6:22 pm
16 18 April 2022 4:14 am 6:23 pm
17 19 April 2022 4:13 am 6:23 pm
18 20 April 2022 4:12 am 6:24 pm
19 21 April 2022 4:11 am 6:24 pm
20 22 April 2022 4:10 am 6:25 pm
21 23 April 2022 4:09 am 6:25 pm
22 24 April 2022 4:08 am 6:26 pm
23 25 April 2022 4:07 am 6:26 pm
24 26 April 2022 4:06 am 6:27 pm
25 27 April 2022 4:05 am 6:27 pm
26 28 April 2022 4:04 am 6:28 pm
27 29 April 2022 4:03 am 6:28 pm
28 30 April 2022 4:02 am 6:29 pm
29 01 May 2022 4:01 am 6:29 pm
30 02 May 2022 4:00 am 6:30 pm
SOURCE: Islamic Foundation

Rangpur Iftar and Sehri Time 2022

Ramadan Calendar – 2022 For Rangpur
Iftar and Sehri Time for Rangpur in 2022

Ramadan DATE SEHRI IFTAR
1 03 April 2022 4:34 am 6:21 pm
2 04 April 2022 4:33 am 6:22 pm
3 05 April 2022 4:32 am 6:22 pm
4 06 April 2022 4:31 am 6:23 pm
5 07 April 2022 4:29 am 6:23 pm
6 08 April 2022 4:28 am 6:24 pm
7 09 April 2022 4:27 am 6:24 pm
8 10 April 2022 4:26 am 6:25 pm
9 11 April 2022 4:25 am 6:25 pm
10 12 April 2022 4:24 am 6:26 pm
11 13 April 2022 4:23 am 6:26 pm
12 14 April 2022 4:21 am 6:27 pm
13 15 April 2022 4:20 am 6:27 pm
14 16 April 2022 4:19 am 6:28 pm
15 17 April 2022 4:18 am 6:28 pm
16 18 April 2022 4:17 am 6:28 pm
17 19 April 2022 4:16 am 6:29 pm
18 20 April 2022 4:15 am 6:29 pm
19 21 April 2022 4:14 am 6:30 pm
20 22 April 2022 4:13 am 6:30 pm
21 23 April 2022 4:11 am 6:31 pm
22 24 April 2022 4:10 am 6:31 pm
23 25 April 2022 4:09 am 6:32 pm
24 26 April 2022 4:08 am 6:32 pm
25 27 April 2022 4:07 am 6:33 pm
26 28 April 2022 4:06 am 6:33 pm
27 29 April 2022 4:05 am 6:34 pm
28 30 April 2022 4:04 am 6:34 pm
29 01 May 2022 4:03 am 6:35 pm
30 02 May 2022 4:02 am 6:36 pm
SOURCE: Islamic Foundation

As per 3rd April, 2022, the last time of sehri today will be at 4:27 AM in Dhaka. And today sehri time in Chittagong will be at 4:28 AM on 3rd April.

NB: All Dates will be responsible as of Moon siting.


Ramadan Time 2022 with Image

iftar and sehri time in bd 2022
Source: teletalkbd

Dua of Iftar

Arabic Iftar Dua (Arbi)

اللَّهُمَّ لَكَ صُمْتُ وَ عَلَى رِزْقِكَ أَفْطَرْتُ وَ عَلَيْكَ تَوَكَّلْتُ

Bengali Iftar Dua (Bangla)

আল্লাহুম্মা লাকা ছুমতু ওয়া তাওয়াক্কালতু আ’লা রিজক্বিকা ওয়া আফতারতু বি রাহমাতিকা ইয়া আর্ হামার রা-হিমীন।

অর্থ: হে আল্লাহ! আমি তোমারই সন্তুষ্টির জন্য রোজা রেখেছি এবং তোমারই দেয়া রিযিক্ব দ্বারা ইফতার করছি।

English Iftar Dua

O, Allah! I fasted for you and I believe in you and I put my trust in You and I break my fast with your sustenance.

Dua of Sehri 

⇒ Arabic Sehri Dua (Arbi)

نويت ان اصوم غدا من شهر رمضان المبارك فرضا لك ياالله فتقبل منى انك انت السميع العليم

⇒ Bengali Sehri Dua (Bangla)

নাওয়াইতু আন আছুমা গদাম মিং শাহরি রমাদ্বানাল মুবারকি ফারদ্বল্লাকা ইয়া আল্লাহু ফাতাক্বব্বাল মিন্নী ইন্নাকা আংতাস সামীউল আলীম।

অর্থ: হে আল্লাহ! আগামীকাল পবিত্র রমযান মাসে তোমার পক্ষ হতে ফরয করা রোজা রাখার নিয়ত করলাম, অতএব তুমি আমার পক্ষ হতে কবুল কর, নিশ্চয়ই তুমি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞানী।

⇒ English Sehri Dua

I intended to fast tomorrow from the blessed month of Ramadan, as an obligation to you, O Allah, so accept from me that you are the All-Hearing, All-Knowing.


Some Frequently Asked Questions About Ramadan Timing 2022:

When is 1st Ramadan 2022 in Bangladesh?

The 1st Ramadan in Bangladesh is Sunday, 3rd April, 2022.

How long is Ramadan 2022 in Bangladesh?

Ramadan 2022 will start from Sunday, 3rd April and will end at Monday, 2nd May in Bangladesh.

What/When is the Iftar time today?

Check the Ramadan Calendar with above mentioned date.

Check Also: | Updated Prayer Time in Bangladesh |

daraz pohela boishakh sale

পহেলা বৈশাখের ইতিহাস ও বর্তমান

বছর ঘুরে আবারও আসতে যাচ্ছে পহেলা বৈশাখ। আবারও সময় আসছে পুরাতনের গ্লানি মুছে নতুন কে স্বাগতম জানানোর। আপনাদের কি জানা আছে পহেলা বৈশাখের প্রথম কবে পালন করা হয়? কিভাবে হয় এর প্রচলন? চলুন জেনে নেওয়া যাক পহেলা বৈশাখের ইতিহাস ও ঐতিহ্য।

ইতিহাস!!!

পয়লা বৈশাখ বা পহেলা বৈশাখ (বাংলা পঞ্জিকার প্রথম মাস বৈশাখের ১ তারিখ) বাংলা সনের প্রথম দিন, তথা বাংলা নববর্ষ। দিনটি বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নববর্ষ হিসেবে বিশেষ উৎসবের সাথে পালিত হয়। ত্রিপুরায় বসবাসরত বাঙালিরাও এই উৎসবে অংশ নিয়ে থাকে। সে হিসেবে এটি বাঙালিদের একটি সর্বজনীন লোকউৎসব হিসাবে বিবেচিত। গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জি অনুসারে ১৪ই এপ্রিল অথবা ক্ষেত্র বিশেষে ১৫ই এপ্রিল (ভারত) পহেলা বৈশাখ পালিত হয়।

ভারতবর্ষে মুঘল সম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার পর সম্রাটরা হিজরী পঞ্জিকা অনুসারে কৃষি পণ্যের খাজনা আদায় করত। কিন্তু হিজরি সন চাঁদের উপর নির্ভরশীল হওয়ায় তা কৃষি ফলনের সাথে মিলত না। এতে অসময়ে কৃষকদেরকে খাজনা পরিশোধ করতে বাধ্য করতে হত। খাজনা আদায়ে সুষ্ঠুতা প্রণয়নের লক্ষ্যে মুঘল সম্রাট আকবর বাংলা সনের প্রবর্তন করেন। সম্রাটের আদেশ মতে তৎকালীন বাংলার বিখ্যাত জ্যোতির্বিজ্ঞানী ও চিন্তাবিদ ফতেহউল্লাহ সিরাজি সৌর সন এবং আরবি হিজরী সনের উপর ভিত্তি করে নতুন বাংলা সনের নিয়ম বিনির্মাণ করেন। ১৫৮৪ খ্রিস্টাব্দের ১০ই মার্চ বা ১১ই মার্চ থেকে বাংলা সন গণনা শুরু হয়। তবে এই গণনা পদ্ধতি কার্যকর করা হয় আকবরের সিংহাসন আরোহণের সময় (৫ই নভেম্বর, ১৫৫৬) থেকে। প্রথমে এই সনের নাম ছিল ফসলি সন, পরে বঙ্গাব্দ বা বাংলা বর্ষ নামে পরিচিত হয়। সেই ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় আধুনিক নববর্ষ উদযাপনের খবর প্রথম পাওয়া যায় ১৯১৭ সালে।

সেই পহেলা বৈশাখের সাথে কালের রুপান্তরে যোগ হয় রমনার বটমূলে ছায়ানটের বর্ষবরণ, মঙ্গল শোভাযাত্রা, হালখাতা, পান্তা ও ইলিশ খাওয়ার প্রথা, নৌকাবাইচ, বউমেলা, ঘোড়ামেলা ইত্যাদি।

বর্তমান!!!

বর্তমানে পহেলা বৈশাখ কে ঘিরে আগের থেকেই শুরু হয় বাঙালিয়ানার রঙ্গে রাঙ্গার জন্য নানা রকম জল্পনা কল্পনা। আগেভাগেই বাঙালি মন প্রস্তুত থাকে পাঞ্জাবি ও পায়জামা, সাদা শাড়ি লালা পাড় সহ নানা রকম আয়োজনে নতুন বছরকে স্বাগতম জানাতে।

তাই বাঙালির প্রাণের উৎসবের আমেজে প্রতি বছরের ন্যায় এবারো দারাজ শপ অনলাইনে আয়োজন করতে যাচ্ছে বৈশাখের সব থেকে বড় ও ঐতিহ্যবাহী পহেলা বৈশাখ মেলা। যেখানে থাকবে আপনার পছন্দের সব পণ্যের উপর সর্বোচ্চ মূল্যছাড়! বিস্তারিত জানতে দারাজ পহেলা বৈশাখ ক্যাম্পেইনে চোখ রাখতে পারেন।

history of bangla new year

পহেলা বৈশাখ ১৪২৯ – ইতিহাস ও বৈশাখী মেলার আদ্যপান্ত

পহেলা বৈশাখ – ১ লা বৈশাখ ১৪২৯, ১৪ ই এপ্রিল ২০২২

পহেলা বৈশাখ কি?

বাঙ্গালীর উৎসব পহেলা বৈশাখ। পহেলা বৈশাখ বা নববর্ষ সুপ্রাচীন বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের অংশ। বাংলা পঞ্জিকার প্রথম মাস বৈশাখের প্রথম দিনটিকে পালন করা হয় বাংলা নববর্ষ অথবা বাঙ্গালীর বৈশাখী মেলা হিসেবে। এদিন বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নানা আড়ম্বর-আয়োজনের মাধ্যমে বরণ করে নেওয়া হয় নতুন বাংলা বছরকে। আগামী দিনের সম্ভবনা আর সমৃদ্ধি কামনায় উৎসবে মেতে ওঠে গোটা জনপদ।

পহেলা বৈশাখের ইতিহাস

বাংলা নববর্ষ বা পহেলা বৈশাখের ইতিহাসের সাথে জড়িয়ে আছে বাংলার সবুজ কৃষি নির্ভর সভ্যতা ও মুঘল সম্রাট আকবরের নাম। বাংলা পঞ্জিকা আসার আগে এদেশে কর আদায় করা হতো হিজরি পঞ্জিকা বা আরবী মাসের সাথে মিলিয়ে। কিন্তু চাঁদের উপর নির্ভরশীল আরবী পঞ্জিকার সাথে ফসল উৎপাদন ও খাজনা আদায়ের সময়কাল পুরোপুরি সুবিধাজনক না হওয়ায় সম্রাট আকবর প্রাচীন বাংলা বর্ষপঞ্জীতে সংস্কার আনেন। প্রথমদিকে এর নাম ছিলো ফসলি সন। পরে এটি বঙ্গাব্দ নামে পরিচিত হয়ে ওঠে।

পহেলা বৈশাখের গান

এসো হে বৈশাখ, এসো এসো ¶¶¶¶¶¶¶¶¶

পয়লা বা পহেলা বৈশাখ বাঙালির প্রাণের উৎসব। সারাদেশে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রবি ঠাকুরের চিরসবুজ গান ‘এসো হে বৈশাখ’-এর তালে তালে মেতে ওঠে গোটা জনপদের মানুষ। পহেলা বৈশাখের তাৎপর্য শুধুমাত্র আনন্দ-উৎসবেই সীমাবদ্ধ নয়- বরং এতে লুকিয়ে আছে পুরাতনকে সাথে নিয়ে, জরা-দুর্দশাকে শক্তিতে পরিণত করে সামনে এগিয়ে যাবার প্রত্যয়।

পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠান, খাবার ও সংস্কৃতি

প্রতি বছরের মতো এবারও নতুন বাংলা বছর ১৪২৯ সনকে বরণ করে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। ইংরেজী ক্যালেন্ডার অনুযায়ী পহেলা বৈশাখ ২০২২ সালের ১৪ এপ্রিল পালিত হবে। প্রচলিত বাংলা বর্ষবরণের অন্যান্য উপকরণের মতো এবারও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের তত্ত্বাবধানে মঙ্গল শোভাযাত্রা, রমনা বটমূলে পান্তা-ইলিশের সাথে সাথে পহেলা বৈশাখের কবিতা, ছবি, চিঠি ও সঙ্গীতের মাধ্যমে উদযাপন করা হবে নতুন বাংলা বছরকে। সাথে থাকবে বৈশাখী মেলা, নৌকা বাইচ, পুতুলনাচসহ আরো সব ঐতিহ্যবাহী আনন্দ-উৎসব অনুষঙ্গ।

নতুন সব বর্ণিল পোষাকে সজ্জিত নারী-পুরুষ-শিশুদের আনন্দ কোলাহলে বাংলা নববর্ষ বেঁচে থাকুক আরো হাজার বছর- বাংলা ও বাঙালির শেকড়ের উৎসব হিসেবে, নতুনকে জয় করা ও সামনে এগিয়ে যাবার প্রত্যয়ে।

পহেলা বৈশাখ – অনলাইন কেনাকাটা

নতুন বছরকে বরণ করতে নিশ্চিতভাবেই আপনার লাগবে বেশ কিছু অত্যাবশ্যকীয় বৈশাখী পোশাক, খাদ্য সামগ্রী ও বাহারী বৈশাখী উপকরণ। পয়লা বৈশাখে কেউ চাইবেন বৈশাখের রঙ্গে নিজেকে রাঙ্গাতে নতুন বৈশাখী পাঞ্জাবি কিংবা পহেলা বৈশাখের শাড়ি পড়তে। কেউবা চাইবেন পান্তা ইলিশ দিয়েই শুরু হবে নতুন বছর। কিংবা আপনার প্রয়োজন হতে পারে ঢোল, বাশি, ভূভুজেলা কিংবা ঐতিহ্যবাহী যে কোন বৈশাখী সরঞ্জাম। দারাজ অনলাইন শপ ক্রেতাদের জন্য তাই প্রতিবছরের ন্যায় এবারো আয়োজন করতে যাচ্ছে পহেলা বৈশাখ সেল উৎসব ১৪২৯ সাল। চলতি বছরের এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া বৈশাখী ক্যাম্পেইনটি চলবে একেবারে পহেলা বৈশাখ(pohela boishakh) পর্যন্ত। শুভ নববর্ষ!

history of pohela boishakh

Pohela Boishakh: Origin, History, Culture & Facts

Pohela Boishakh (Bangla New Year) Date – Thursday, 14 April, 2022 in Bangladesh

What is Pohela Boishakh / Bangla New Year?

Bengali New Year is referred to in Bengali as “New Year” (Bengali: নববর্ষ Nôbobôrsho, from Sanskrit Nava(new) Barṣha(year) or “First of Boishakh” (Bengali: পহেলা বৈশাখ Pôhela Boishakh. Nobo means new and Borsho means year. In Bengali, Pohela stands for ‘first’ and Baishakh is first month of Bengali calendar.

Bengali New Year (Bengali: নববর্ষ) or Pahela Boishakh (পহেলা বৈশাখ) is the first day of the Bengali calendar, celebrated in both Bangladesh and West Bengal, and in Bengali communities in Assam, Tripura and Odisha and all over India as well where the Bengali community arises. It coincides with the New Year’s Days of numerous Southern Asian calendars. Poila Boishakh connects all ethnic Bengalis irrespective of religious and regional differences. In India, in West Bengal and Assam, it is a public (state) holiday and is publicly celebrated in mid-April. In Bangladesh, it is a national holiday celebrated around 14 April according to the official amended calendar designed by the Bangla Academy.

Pohela Boishakh at Bengal Dhaka
Celebration of Pohela Boishakh,Dhaka[Sincere Thanks to S.M. Tanvir Ayon for this Magnificent Snapshot]

Boishakh/Baishakh is the first of the Bengali months where Pohela simply means “first”. The term “Pohela Boishakh” therefore, stands for the first day of the Bengali year and naturally refers to the festivity attached to this day as well. The celebration itself is called “Borsho Boron Utsab” or “Boishakhi Utsab” (the gala of Boishakh) which is held to welcome the Nobo Borsho (New Year). It is one celebration that goes beyond geographical borders as the Bengali New Year is celebrated in the West Bengal of India as well as in Bangladesh, making it the biggest cultural festival that has survived the last few centuries where Bengalis of all walks of life come together to make it colorful, bright and joyous.

Origin & History of Pohela Boishakh:

Who Started Bengali New Year?

The story of the pohela boishakh history has a few versions, however, they all go back to one particular Mughal emperor, Akbar the Great and the tax collecting process under his reign (1556-1609). Several hundred years ago, the economy almost entirely depended on agricultural productions. In Bengal, the agriculture necessarily revolved around its six seasons. Under the Mughals, tax was collected on the basis of Arabic or Hijri year that did not exactly go hand in hand with the seasonal cycle of this region. For instance, when it was time for the landowners to collect taxes, the peasants would still be waiting to reap their products from the fields.

 

This way, following a lunar calendar that hijri year was based upon, proved inconvenient for all the parties involved. Realizing the urgency of reformation in the existing year system, the Baadshah (emperor) gave one of the many renowned scholars of his court, Fatelluah Shiraji the responsibility to make the necessary amendments. The new calendar was designed keeping the nature of all six seasons, their duration and contribution to the agriculture in mind. Some scholars argue that Pohela Boishakh (1st boishakh) was anything but a reason for festivity for the peasants who comprised the majority of the population when they had to pay off their taxes on the last day of Chaitra/ Choitro, the month before Boishakh.

Besides, the landlords, to collect the taxes, often subjected the grassroot people to physical force. Such circumstances were most unlikely to leave people in a mood for festivity by the time the Pohela Boishakh was knocking on their doors. Despite having enough reasons for it to be the contrary, Pahela Baishakh was a time for celebration. To avoid any serious rebellion, Badshah Akbar introduced the masterfully crafted custom of the New Year celebration that took place right after the tax-paying day. The amusements and feasts that used to be arranged helped to smoothen the harshness of the tax paying and sow the hopes for a better year among all.

As mentioned earlier, the celebration of Bengali New Year, poyla Boishakh, takes place both in West Bengal and Bangladesh. But, Pahela Boishakh in Bangladesh did not receive a collective form until 1965. During the growing movement for an independent state from Pakistan that began by the end of the 1940s and continued until the independence in 1971, the former Pakistani Government implemented many policies that were somewhat modified versions of the British “Divide and Rule” principle.

In other words, those policies were meant to differentiate a Bengali Muslim from others and avoid a strong, joint movement for independence. As a continuation to such steps, the Pakistani government banned poems by the Noble winning Bengali author, Shree Rabindranath Tagore. Then, Chhayanaut, the only major Fine Arts institution of the time designed their cultural show for Poila Boishakh to be a means of protest. The Pohela Boishakh that takes place under the Banyan tree of Ramna Park in Dhaka ever since was to open with Boishakhi songs by Tagore.

This way, Pohela Boishak became one with the nationalist notions of the Bengali people who resided in the East Pakistan, known as Bangladesh today. The fine Arts Institute (CharuKala Institute) of Dhaka University enhanced the attraction of the day in the late 1980s by adding Boishakhi Parade (Shobha Jatra) so that a growing participation and acceptance is ensured. Soon, an attempt by a few hundred people to uphold the Bengali traditions and unify Bengalis while doing it, transformed into a national event.

In the West Bengal, Bengali New Year celebration has ties to religious values as well. The entire month of Boishakh is considered auspicious. Therefore, the first day by itself is reason enough for festivity. For the Hindu, the day begins with Puja (religious ritual) followed by cultural shows. Because of its being considered auspicious, Boishakh is the month when most Hindu weddings take place in both Bengals.

Aspects & Activities of Pohela Boishakh:

How is Pohela boishakh celebrated?

In Bangladesh, the day begins before the break of dawn when crowd gathers in Ramna Park for the Cultural show held by Chhayanat every year. Women mainly wear white Shari (saree price in bangladesh) with red border. Since Boishakh brings spring, women adorn their hair with flowers and wear colorful churi (bangles) that symbolizes the many colors and renewed life in nature. On the other hand, men mainly wear traditional Punjabi (Panjabi price in bangladesh) with Paayjama, Lungi or Dhuti/Dhoti.

  • Boishakhi Parade (Mongol Shova jatra): Boishakhi Mongol Shobha Jatra is one of the biggest attractions of the day. Very early in the morning, the rally starts from the CharuKala Institute of Dhaka University.
Mongal Shobhajatra Pohela Boishakh
Mongal Sobhajatra in Pohela Boishakh
  • Boishakhi Fair (Mela):

    It is arranged all over the country and continues for at least a week. There are a wide range of products and activities that make the fair an attraction to all age groups. From home accessories to anything and everything that speaks Bengali authenticity, find their way to here. One of the fun aspects of the Boishakhi Mela is the joy ride like the Merry-Go-Round and Ferris wheel. The ones seen in this fair are different in that these are much smaller with a simpler structure made out of wood and bamboo and lacking engines to run them. In stead, two or more men stand beside these rides to push.

pohela boishakhi mela
Fair in Pohela Boishakh
  • Alpona:

    In the front yard and staircases, miniature Aalponas or Rangolies, traditional designs, are drawn using bright colors like red, green, blue and yellow as well as powdered rice. Drawing gigantic Aalponas in the main streets and walls all nightlong is one fun activity where both male and female participates.

boishakhi alpona art at dhaka
Pohela Baishakh 1421 adorned with Airtel Alpona
 
  • Haalkhata:

    It is the ritual of closing the old Ledger and opening a new one with new entries on Pohela Boishakh. Traders involved in gold, clothing or food business send out invitations to old customers and entertain them with sweets.

halkhata at pohela boishakh

         On the 1st day of Pohela Boishakh,businessmen greets their customers with sweets,
          commence a “Halkhata”(new ledger)& lock their old ones. Source:Star file photo
  • Sports:

    Rural sports such as Nouka Baich (boat race), Kite flying, Bull Racing, and flying pigeons are among the more popular ones.

noukabaich at pohela boishakh

               Nouka Baich (Boat Racing) Image Source : worldphoto.org

Cultural Activities of Pohela Boishakh

Folk songs such as Palagan, kavigan, Jarigan, Gambhira gan, Gazirgan, baul, marfati, murshidi and bhatiali songs are staged. So are Jatra (one kind of plays) and other form of Bengali performing arts.

Pohela Boishakh in Dhaka

New Year’s festivities are closely linked with rural life in Bengal. Usually on Pahela Boishakh, the home is thoroughly scrubbed and cleaned; people bathe early in the morning and dress in fine clothes. They spend much of the day visiting relatives, friends and neighbors. Special foods are prepared to entertain guests. This is one rural festival that has become enormously big in the cities, especially in Dhaka.

Boishakhi fairs are arranged in many parts of the country. Various agricultural products, traditional handicrafts, toys, cosmetics, as well as various kinds of food and sweets are sold at these fairs. The fairs also provide entertainment, with singers and dancers staging jatra (traditional plays), pala gan, kobiganjarigan, gambhira gan, gazir gan and alkap gan. They present folk songs as well as baul, marfatimurshidi and bhatiali songs. Narrative plays like Laila-Majnu, Yusuf-Zulekha and Radha-Krishna are staged. Among other attractions of these fairs are puppet shows and merry-go-rounds.

baul song on pohela boishakh

                         Bauls performing in Pohela Boishakh

Pohela Boishakh Games

Many old festivals connected with New Year’s Day have disappeared, while new festivals have been added. With the abolition of the zamindari system, the punya connected with the closing of land revenue accounts has disappeared. Kite flying in Dhaka and bull racing in Munshiganj used to be very colorful events. Other popular village games and sports were horse races, bullfights, cockfights, flying pigeons, and boat racing. Some festivals, however, continue to be observed; for example, bali (wrestling) in Chittagong and gambhira in Rajshahi are still popular events.

Pohela Boishakh Food

Observance of Pohela Boishakh has become popular in the cities. Early in the morning, people gather under a big tree or on the bank of a lake to witness the sunrise. Artists present songs to usher in the new year. People from all walks of life wear traditional Bengali attire: young women wear white saris with red borders and adorn themselves with churi bangles, ful flowers, and tip (bindis). Men wear white paejama(pants) or lungi(dhoti/dhuti) (long skirt) and kurta (tunic). Many townspeople start the day with the traditional breakfast of panta bhat (rice soaked in water), green chillies, onion, and fried hilsa fish.

pohela boishakh foods with hilsha fish

Panta Ilish(পান্তা ইলিশ) – a traditional platter of leftover rice soaked in water with fried Hilsa(ইলিশ), supplemented with dried fish (Shutki/শুঁটকী), pickles (Achar), lentils (dal), green chilies and onion – a popular dish for the Pohela Boishakh festival.

Pohela Boishakh Songs

The most colorful New Year’s Day festival takes place in Dhaka. Large numbers of people gather early in the morning under the banyan tree at Ramna Park where Chhayanat artists open the day with Rabindranath Tagore’s famous pohela boishakh song, এসো, হে বৈশাখ, এসো এসো Esho, he Boishakh, Esho Esho (Come, O Boishakh, Come, Come). A similar ceremony welcoming the new year is also held at the Institute of Fine Arts, University of Dhaka. Students and teachers of the institute take out a colorful procession and parade around the campus. Social and cultural organizations celebrate the day with cultural programs. Newspapers bring out special supplements. There are also special programs on the radio and television.

borshoboron at ramna batomul

           Borsho Boron at Ramna Botomul. Source : bdnews24 photo archive

The historical importance of Pohela Boishakh in the Bangladeshi context may be dated from the observance of the day by Chhayanat in 1965. In an attempt to suppress Bengali culture, the Pakistani Government had banned poems written by Rabindranath Tagore, the most famous poet and writer in Bengali literature. Protesting this move, Chhayanat opened their Pohela Boishakh celebrations at Ramna Park with Tagore’s song welcoming the month. The day continued to be celebrated in East Pakistan as a symbol of Bengali culture. After 1972 it became a national festival, a symbol of the Bangladesh nationalist movement and an integral part of the people’s cultural heritage. Later, in the mid- 1980s, the Institute of Fine Arts added color to the day by initiating the Boishakhi parade, which is much like a carnival parade.

CHOTTOGRAM, Bangladesh | চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ

The center of attraction of the Pohela Boishakh celebrations in the port city Chottogram is the DC Hill Park [ডিসি পাহাড় পার্ক]. Sammilitō Sanskritik Jot [সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট] organizes a two-day festival to bid farewell to the old year and welcome the New Year. Various cultural events are organized here including plays etc. The public celebration of Poyela Boishakh in Chottogram was started in 1973; the initiative was taken by the politicians to promote the Bengali culture.

festive mood in pohela boishakh

        Festive Mood in Chattogram DC Hill. Image Source: Daily Asian age.
  • Chottogram Hill Tracts | চট্টগ্রামের পার্বত্য জেলা :

    In the Hill tracts of Chattogram, three different ethnic minority groups have their individual New Year celebrations. Boisuk [বৈশুখ] of Tripura People, Sangrai [সাংগ্রাই] of Marma people and Biju [বিজু] of Chakma people; presently they have come together to celebrate it commonly as Boi-Sa-Bi [বৈ-সা-বি], a day of a wide variety of festivities; especially need to mention the water festival [জল উৎসব] of the Marma people.

KHULNA, Bangladesh | খুলনা, বাংলাদেশ

College students take great effort in designing festoons, banners, colorful masks for this event. A newly formed non-governmental cultural organization Shokha Moyukh celebrated Pohela Boishakh at the campus of Govt. B L College, Khulna. The rally was followed by a cultural function at the campus. The event was organized by the students with support from the college faculty. Pohela Boishakh is celebrated in Khulna with enormous joy and enthusiasm. People from all walks of life take part in the Borshoboron Rally (বর্ষবরণ পদযাত্রা) organized by Khulna Sonskriti Kendro(খুলনা সংস্কৃতি কেন্দ্র).

              Inauguration of Pohela Baishakh Ceremony, 1423 at Khulna

Kolkata and West Bengal | কলকাতা এবং পশ্চিম বঙ্গ

Kolkata, the sovereign of Bengalis in India; witnesses some of the grand celebrations of Poyela Boishakh. In Kolkata and the rest of Indian/West Bengal, Poyela Boishakh and indeed the entire month of Boishakh is considered an auspicious time for marriages, opening of new business ventures etc. Choitro is the Last month of the Bangla year; the garment traders give special discounts throughout the month. The last day of Choitro, is celebrated as Choitro Sankranti among the Hindu community, and Charak Pujo is held on this day. On this very same day, Charak Mela/fair is organized in various parts of rural Bengal; some really miraculous acrobatics are performed by the members and these stunts are quite risky indeed.

boishakh jatra at pohela boishakh
Boishakhi Jatra, AJC Bose Road, Kolkata
Courtesy: New Year Photo Gallery Blog

Pohela Boishakh is also the occasion when the whole family comes for a get together; youngsters touch feet of elders seeking benediction (আশীর্বাদ), and peers greet each other Suvo Nôbobôrsho with a hug (Kolakuliকলাকুলি). The celebration remains incomplete without “mishti mukh” exchanging sweets with the near and dear ones. The day of Poyela Boishakh is a day of cultural events. Like Bangladesh, here also people wake up & bathe early in the morning and dress up in traditional Bengali attire. Many go for Probhat Pheri (a parade similar to “Shobhajatra” in Bangladesh, but it’s not as colorful as that) to welcome the first day of the New Year singing Rabindra Sangeet, here also the song “এসো, হে বৈশাখ, এসো এসো”Esho, he Boishakh, Esho Esho is very popular.

Businessmen open new accounting books (HalKhata) on this day; for the Bengali Hindu businessmen HalKhata begins only after performing puja, “Swastik” sign is drawn on the HalKhata by the priests. Devotees are seen in front of the Kalighat temple (কালীঘাট মন্দির), in long queues, from the late night. Devotees offer Puja to receive the blessings of the almighty.

The Government of West Bengal organizes various fairs and cultural events in different parts of the state. The most famous of these is Bangla Sangit Mela(রবীন্দ্র সঙ্গীত), held at Nandan-Rabindra Sadan ground.

OTHER NATIONS | অন্যান্য দেশ

Apart from Bengal, Poyela Boishakh is also celebrated by the Bengali community living in the United Kingdom, United States of America, Australia etc.

Today, Pohela Boishakh celebrations also mark a day of cultural unity without distinction between class or religious affiliations. Of the major holidays celebrated in Bangladesh, only Pohela Boishakh comes without any preexisting expectations (specific religious identity, the culture of gift-giving, etc.). Unlike holidays like Eid ul-Fitr, where dressing up in lavish clothes has become a norm, or Christmas where exchanging gifts has become an integral part of the holiday, Pohela Boishakh is really about celebrating the simpler, rural roots of the Bengal. As a result, more people can participate in the festivities together without the burden of having to reveal one’s class, religion, or financial capacity.

Are You ready for pohela boishakh sale online? Then Download Daraz App now! 

govt. holiday list of bangladesh

Government Holidays Calendar – Bangladesh National Holidays List 2022

Good news, Bangladesh Government Holiday Calendar 2022 is published. Are you looking for the holiday calendar 2022 of Bangladesh? You can search the National Government holidays 2022 (বাংলাদেশ) to find the Government holiday list of the year 2022. Here you can check the National BD Holiday calendar 2022 with the Calendar 2022 Bangladesh pdf now.

 The Government Holiday List of Bangladesh in 2022

 Check the National Holiday List of Bangladesh. Government Holiday List of Bangladesh in 2022

Date Day Holiday List
21 Feb Mon International Mother Language Day
17 Mar Thu Birthday of Bangabandhu
18 Mar Fri Shab e-Barat
26 Mar Sat Independence Day of Bangladesh
14 Apr Thu Bengali New Year
29 Apr Fri Laylat ul-Qadr
29 Apr Fri Jumatul Bidah
1 May Sun May Day
2 May Mon Eid ul-Fitr Holiday
3 May Tue Eid ul-Fitr
4 May Wed Eid ul-Fitr Holiday
16 May Mon Buddha Purnima
9 Jul Sat Eid ul-Adha Holiday
10 Jul Sun Eid ul-Adha
11 Jul Mon Eid ul-Adha Holiday
9 Aug Tue Ashura
15 Aug Mon National Mourning Day
19 Aug Fri Shuva Janmashtami
5 Oct Wed Vijaya Dashami
9 Oct Sun Eid-e-Milad un-Nabi
16 Dec Fri Victory Day of Bangladesh
25 Dec Sun Christmas Day

As you want the Government Calendar 2022, see this 2022 saler calendar to prepare the holiday vacation plans better.

Image of the 2022 calendar with holidays Bangladesh


Want to see the Calendar 2022 with holidays Bangladesh?

2022 Calendar with Holidays Bangladesh pdf

Bangladesh Govt. Holidays Calendar 2022 PDF

** Holidays to be observed in 2022 are listed here as per the Government decision.

N.B: Dates can be varied according to the moon siting and will be updated as per further Govt. notice.

css.php